রেজাউল ইসলাম পলাশ: ঝালকাঠির রাজাপুর উপজেলা সদরের দারুল উলুম কওমী মাদ্রাসার প্রতিষ্ঠাতা ক্বারী মোঃ বেলায়েত হোসেন ও তার ছোট ভাই মোঃ সিরাজুল ইসলাম তালুকদারের বিরুদ্ধে বিব্রত সংবাদ প্রকাশ করায় পূনরায় সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যামে প্রতিবাদ জানিয়েছেন শেফালি বেগম।

ররিবার (০২ জানুয়ারি) বেলা ১১ টায় দারুল উলুম কওমী মাদ্রাসার অফিস রুমে শেফালি বেগম ও তার বড় বোন মঞ্জু বেগম উপস্থিত হয়ে অভিযোগ করে বলেন, গত শনিবার ১ জানুয়ারি স্থানীয় একটি রেস্টুরেন্টে একটি সংবাদ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়েছে। একটি কুচক্রিমহলের আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে বাইপাস মোড় এলাকার আমাদের আত্বীয় নাসির তালুকদার আমার বোন মঞ্জু ও আমাকে রেস্টুরেন্টে ডেকে নেয় জমি পাইয়ে দেবে বলে। সেখানে উপস্থিত সাংবাদিকরা লিখিত একটি কাগজে আমার স্বাক্ষর নিতে চায়। আমি (শেফালি বেগম) জানতে চাই এই কাগজে কি লেখা আছে তখন সাংবাদিকরা আমাকে বলে পড়ে দেখতে। আমি লেখাপড়া জানিনা কিভাবে পড়ে দেখবো বললে তারা বলে তাহলে স্বাক্ষর দেন। তখন আমি তাদের কথা মতো স্বাক্ষর দেই। উপস্থিত সাংবাদিকরা আমার হাতে ঐ কাগজটি দিয়ে কয়েকটি ছবি তুলে আমাদের বিদায় দেয়। এই সংবাদ সম্মেলনের আমি আয়োজন করিনি এবং আমি কোনো ফি দেইনি।

রোববার সকালে আমাদের ধানসিঁড়ি, প্রভাতি নিউজ ও নববার্তা নামের অনলাইন পোর্টাল ও বরিশাল থেকে প্রকাশিত কিছু আঞ্চলিক পত্রিকায় দেখতে পাই আমাদেও চাচা ক্বারী মোঃ বেলায়েত হোসেনকে নিয়ে আপত্তিকর, মানহানিকর ও মনগড়া মিথ্যা ও বানোয়াট সংবাদ প্রকাশ করেছে কতিপয় স্থানীয় সাংবাদিকরা। ক্বারী মোঃ বেলায়েত হোসেন ও তার ছোট ভাই মোঃ সিরাজুল ইসলাম তালুকদারের সাথে ঝালকাঠি আদালতে আমাদের একটি দেওয়ানী মামলা চলমান আছে। আর সেই সুযোগ কাজে লাগিয়ে একটি কুচক্রিমহল আমাদের সাথে প্রতারনা করে স্বাক্ষর নিয়ে এমন উদ্দেশ্যমূলক মানহানিকর মিথ্যা ও বানোয়াট সংবাদের আমি তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাই এবং আমাদের জড়িয়ে ক্বারী মোঃ বেলায়েত হোসেনের বিরুদ্ধে এমন মিথ্যা ও মানহানিকর সংবাদ প্রকাশের সাথে ও নেপথ্যে জড়িত সকলের বিচার দাবী করছি।

Previous articleনোয়াখালীতে ককটেল তৈরির সরঞ্জামসহ গ্রেফতার ৪
Next articleমুলাদীতে পাত্রী দেখে ফেরার পথে প্রবাসী বরসহ ৩ জন নিহত
আজকের বাংলাদেশ ডিজিটাল নিউজ পেপার এখন দেশ-বিদেশের সর্বশেষ খবর নিয়ে প্রতিদিন অনলাইনে । ব্রেকিং নিউজ, জাতীয়, আন্তর্জাতিক রিপোর্টিং, রাজনীতি, বিনোদন, খেলাধুলা আরও অন্যান্য সংবাদ বিভাগ । আমাদের হাত বাধা নেই, আমাদের চোখ খোলা আমরা বলতে পারি ।