ওসমান গনি: কুমিল্লার চান্দিনা উপজেলায় পৃথক হামলার ঘটনায় নৌকার দুই এজেন্ট আহত হয়। শুক্রবার (৭ জানুয়ারি) সকালে উপজেলার মাইজখার ইউনিয়ন যুবলীগের সহ-সভাপতি মো. লিটন প্রধান কে পিটিয়ে গুরুতর আহত করে আ’লীগের অপর গ্রুপ। আহত যুবলীগ নেতা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন।

অপরদিকে একই দিন বিকালে চান্দিনা উপজেলার বাড়েরা ইউনিয়নের নৌকার এজেন্ট আল আমিন (২৮) কে মাথায় ও পায়ে এলোপাতাড়ি কুপিয়ে আহত করেছে বিদ্রোহী প্রার্থীর নেতাকর্মীরা। রক্তাক্ত অবস্থায় আহত আল-আমিনকে কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়। আহত আল-আমিন উপজেলার বাড়েরা ইউনিয়নের জয়দেবপুর গ্রামের ইব্রাহিম খলিলের ছেলে।

স্থানীয় সূত্র জানায়, নির্বাচনে নৌকা প্রতিকের প্রার্থী ছিল উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি মোন্তাকিম আশরাফ টিটুর অনুসারী। ৫ জানুয়ারির নির্বাচনে স্থানীয় সংসদ সদস্যের অনুসারি বিদ্রোহী প্রার্থী জয়লাভ করে। নির্বাচনের পর থেকেই সংঘর্ষ চলছে বিভিন্ন ইউনিয়নে। নৌকার সমর্থকদের উপর হামলা-নিযর্যাতন চলছে বলে জানা যায়।

উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি মুনতাকিম আশরাফ টিটু জানান, নৌকার পক্ষে কাজ করেছে, এজেন্ট ছিল। এটাই লিটন ও আল-আমিন এর অপরাধ। আমরা অপরাধিদের শাস্তি দাবি করছি। চান্দিনা জুড়ে নৌকার নেতাকর্মী, সমর্থক, ভোটাররা এখন আতঙ্কে রয়েছে। তারা হামলা-মামলা ও নির্যাতনের শিকার হচ্ছে।

এব্যাপারে চান্দিনা থানার অফিসার ইন-চার্জ (ওসি) মোহাম্মদ আরিফুর রহমান জানান, ‘খবর পেয়ে আমরা পুলিশ পাঠিয়েছি। পুলিশ আহতদের সাথে কথা বলেছে। আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।’

উল্লেখ্য যে, গত ৫ জানুয়ারি চান্দিনার ইউনিয়ন পরিষদগুলোতে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। এরপরই সংঘর্ষ প্রায় প্রতিদিনই চলছে।

Previous articleচাঁপাইনবাবগঞ্জে নির্বাচন পরবর্তী হামলা: গ্রেফতার আতঙ্কে পুরুষশূন্য গ্রাম
Next articleক্ষেতলালে রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটির কম্বল বিতরণ
আজকের বাংলাদেশ ডিজিটাল নিউজ পেপার এখন দেশ-বিদেশের সর্বশেষ খবর নিয়ে প্রতিদিন অনলাইনে । ব্রেকিং নিউজ, জাতীয়, আন্তর্জাতিক রিপোর্টিং, রাজনীতি, বিনোদন, খেলাধুলা আরও অন্যান্য সংবাদ বিভাগ । আমাদের হাত বাধা নেই, আমাদের চোখ খোলা আমরা বলতে পারি ।