কামাল সিদ্দিকী: পাবনা সদর উপজেলায় শাহীন হোসেন (৩০) নামের এক যুবককে হত্যার দায়ে ৩ ভাইয়ের যাবজ্জীবন কারাদন্ড দিয়েছেন আদালত। একই সঙ্গে তাঁদের প্রত্যেককে ২৫ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে। অনাদায়ে আরও এক বছরের কারাদন্ডের আদেশ দেয়া হয়েছে।

মঙ্গলবার দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে পাবনার বিশেষ জেলা ও দায়রা জজ আদালতের বিচারক মো. আহসান তারেক এ রায় ঘোষণা করেন।

নিহত শাহীন পাবনা সদর উপজেলার মালঞ্চি ইউনিয়নের কাশিনাথপুরের চরপাড়া গ্রামের মৃত আবুল হোসেনের ছেলে। পেশায় কাঠমিস্ত্রী ছিলেন। দন্ডপ্রাপ্তরা হলেন- কাশিনাথপুরের চরপাড়ার গ্রামের শাহেদ আলীর তিন ছেলে বাবু (৩৮), মোস্তফা (৩২) এবং আবু (৩৫)। সাজাপ্রাপ্তরা সবাই পলাতক রয়েছেন।

মামলার এজাহার সূত্রে জানা যায়, ২০১০ সালের ২৭ জুলাই রাতে শাহিন কাঠমিস্ত্রীর কাজ শেষে বাড়ি ফেরার পথে মালঞ্চির রামানন্দপুরের কালভার্ট রোডে পৌঁছামাত্র পূর্বপরিকল্পিতভাবে ওঁৎ পেতে থাকা আসামিরা চাপাতি, টাংগি, লাঠি, লোহার রড, তলোয়ার দিয়ে কুপিয়ে ও পিটিয়ে গুরুতর আহত করে। এসময় আশপাশের লোকজন তাঁকে আশঙ্কাজনক অবস্থায় পাবনা জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা করলে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তাঁর মৃত্যু হয়।

এঘটনার পরেরদিন নিহতের স্ত্রী সিমা খাতুন ১০ জনের নাম উল্লেখ করে পাবনা সদর থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন। মামলার দীর্ঘ তদন্ত শেষে ৭ জনকে বাদ দিয়ে ৩ জনের বিরুদ্ধে আদালতে অভিযোগপত্র দাখিল করে পুলিশ। ঘটনার পর থেকেই আসামিরা পলাতক রয়েছেন। দীর্ঘ শুনানির পর আদালত হত্যার সঙ্গে সরাসরি জড়িত ও পরিকল্পনাকারী ৩ জনকে যাবজ্জীবন কারাদন্ডের এই আদেশ দেন।

রাষ্ট্রপক্ষে মামলা পরিচালনা করেন অ্যাডভোকেট দেওয়ান মজনুল হক। বাদী পক্ষে ছিলেন অ্যাডভোকেট ইদ্রিস আলী।

Previous articleদেশে করোনায় এক দিনে মৃত্যু বেড়ে প্রায় দ্বিগুণ
Next articleসোনারগাঁওয়ে ভারতীয় শাড়ী ও লেহেঙ্গা উদ্ধার, আটক ২
আজকের বাংলাদেশ ডিজিটাল নিউজ পেপার এখন দেশ-বিদেশের সর্বশেষ খবর নিয়ে প্রতিদিন অনলাইনে । ব্রেকিং নিউজ, জাতীয়, আন্তর্জাতিক রিপোর্টিং, রাজনীতি, বিনোদন, খেলাধুলা আরও অন্যান্য সংবাদ বিভাগ । আমাদের হাত বাধা নেই, আমাদের চোখ খোলা আমরা বলতে পারি ।