সাহারুল হক সাচ্চু: সিরাজগঞ্জের উল্লাপাড়ায় ভুতগাছা গ্রামে একের পর এক হাঁসের বাচ্চা উৎপাদন খামার ( হ্যাচারী) গড়ে উঠছে ৷ এখানকার খামারগুলোয় উৎপাদিত হাঁসের বাচ্চা দেশের বিভিন্ন এলাকার ব্যবসায়ী ও খামারীরা কিনে নিয়ে যান ৷ প্রতিদিন হাজার হাজার হাঁসের বাচ্চা বিক্রি হয় ৷ এখন ভুতগাছা হাঁসের বাচ্চা উৎপাদন ও বিক্রিতে গোটা দেশের মধ্যে সেরা মোকাম বাজার হয়েছে ৷

উল্লাপাড়া উপজেলার বড়হর ইউনিয়নের ভুতগাছা গ্রামটি নগরবাড়ী মহাসড়কের একেবারে পাশেই ৷ গত ক্#৩৯;বছরে গ্রামটিতে বড় ছোটো মিলে প্রায় পচিশটি হাঁসের বাচ্চা উৎপাদন খামার গড়ে উঠেছে ৷ খামারগুলো হাঁসের বাচ্চা উৎপাদন হ্যাচারী নামেও পরিচিতি পেয়ে আছে ৷ এখানকার খামার মালিকেরা আগে অন্য পেশায় কাজ কিংবা ব্যবসা করেছেন বলে জানা গেছে ৷ প্রায় আড়াই যুগ আগে আঃ হামিদ মোল্লা (৬৫) নিজ ভুতগাছা গ্রামে প্রথম হাঁসের বাচ্চা উৎপাদন খামার গড়েন ৷ তিনি সে সময় রিকসা চালাতেন ৷ তার খামারটি এখন সবচেয়ে বড় খামার ৷ এগ্রামে গড়ে তোলা আরো কটি খামার মালিক হলেন মোতালেব মোল্লা , আনোয়ার হোসেন মোল্লা , হাশেম খান , শুকুর আলী খান , সরোয়ার আলী ৷ প্রতিবেদককে মোল্লা হ্যাচারী মালিক আঃ হামিদ মোল্লা বলেন , তার খামারে এক সাথে প্রায় ষোলো হাজার ডিম বাচ্চা উৎপাদনে বসানো হয়ে থাকে ৷ পাবনা , ফরিদপুর , সিরাজগঞ্জের তাড়াশ উপজেলা এলাকাসহ আরো বিভিন্ন এলাকা থেকে হাঁসের ডিম কিনে আনা হয় ৷ তার খামারসহ অন্য খামারগুলোয় উৎপাদিত হাঁসের বাচ্চা পাবনা , যশোর , কুমিল্লা , ক´বাজার সহ আরোও আঠারো থেকে বিশ জেলার ব্যবসায়ীরা এখান থেকে পাইকারী কিনে নিয়ে যান ৷ এসব ব্যবসায়ীদের কাছ থেকে ফড়িয়া ব্যবসায়ীরা হাঁসের বাচ্চা কিনে গ্রামে ফেরি করে বিক্রি করে থাকেন ৷ এছাড়া খামারী কেনেন ৷

এদিকে বিভিন্ন এলাকার খামারীরা সরাসরি ভুতগাছায় এসে হাঁসের বাচ্চা কিনে নিয়ে যান ৷ শাহজাদপুর উপজেলার জামিরতা গ্রামের মোঃ সালাহউদ্দিন প্রতিবেদককে বলেন আগে অন্য পেশায় কাজ করেছেন ৷ নিজ বাড়ীতে হাঁস লালন পালনে খামার ঘর করেছেন ৷ এখান থেকে প্রায় এক হাজার হাঁসের বাচ্চা কিনে নিলেন ৷ তার এলাকায় এমন আরো গোটা তিনেক খামার আছে ৷ এদিকে ভুতগাছা গ্রামের বিভিন্ন খামিরে সরেজমিনে প্রায় দেড় ঘণ্টা থেকে দেখা গেছে গ্রামীণ বসতি বহু নারীকে এখান থেকে হাঁসের বাচ্চা কিনে নিয়ে যেতে দেখা গেছে ৷ একাধিক জনের সাথে কথা বলে জানা গেছে এরা বাড়ীতে লালন পালনে বিশ পচিশটি হাঁসের বাচ্চা কিনে নিচ্ছেন ৷ সংসারের বাড়তি আয়ে তারা হাঁসের বাচ্চা লালন পালন করবেন বলে জানান ৷ উপজেলা প্রাণী সম্পদ কর্মকতা ডাঃ মোঃ মোর্শেদ উদ্দীন আহম্মেদ বলেন হাঁসের বাচ্চা উৎপাদন খামারীগণ এর জন্য তার বিভাগে আসলে অবশ্যই পরামর্শ দেওয়া হবে ৷

Previous articleধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাত: কেশবপুরের সেই আলোচিত শিক্ষককে সাসপেন্ডের নির্দেশ
Next articleকক্সবাজারে মানবপাচার চক্রের ৬ সদস্য গ্রেফতার, ৪৮ নারী-পুরুষ উদ্ধার
আজকের বাংলাদেশ ডিজিটাল নিউজ পেপার এখন দেশ-বিদেশের সর্বশেষ খবর নিয়ে প্রতিদিন অনলাইনে । ব্রেকিং নিউজ, জাতীয়, আন্তর্জাতিক রিপোর্টিং, রাজনীতি, বিনোদন, খেলাধুলা আরও অন্যান্য সংবাদ বিভাগ । আমাদের হাত বাধা নেই, আমাদের চোখ খোলা আমরা বলতে পারি ।