জয়নাল আবেদীন: পল্লী বিদ্যুতের বকেয়া বিল পরিশোধ করার পরও বিদ্যুৎ বিল বকেয়া থাকার অভিযোগে খামারের সংযোগ বিচ্ছিন্ন করায় গরম সহ্য করতে না পেরে খামারের ৬শ মুরগি মারা গেছে বলে দাবি করেছেন খামার মালিক হাসানুর রহমান । এই ঘটনা রংপুর সদর উপজেলার চন্দনপাট ইউনিয়নে ।

জানা গেছে, চন্দনপাট ইউনিয়নের কাজীপাড়ায় ব্রয়লার মুরগির খামার গড়ে তোলেন হাসানুর। গত ফেব্রুয়ারিতে ৭ হাজার ২শ টাকা বকেয়া বিদ্যুৎ বিল পরিশোধ সাপেক্ষে নতুন করে সংযোগ নিয়ে মুরগির খামার শুরু করেন তিনি।

এদিকে, ২৪ হাজার টাকা বকেয়া বিল থাকার অভিযোগে বৃহস্পতিবার বিকেলে পল্লী বিদ্যুৎ অফিসের লোকজন এসে সংযোগ বিচ্ছিন্ন করে দেন। এসময় হাসানুর বাড়িতে ছিলেন না এবং তাকে না জানিয়েই সংযোগ বিচ্ছিন্ন করা হয়েছে বলে অভিযোগে উল্লেখ করা হয়েছে। পরে সন্ধ্যায় বাড়ি ফিরে বিদ্যুৎ সংযোগ বিচ্ছিন্ন দেখেন হাসানুর। এ অবস্থায় শুক্রবার সকালে ঘুম থেকে উঠে তিনি দেখেন যে, খামারে থাকা ৬শ মুরগি গরম সহ্য করতে না পেরে মারা গেছে। পরে তিনি বিকেলে থানায় অভিযোগ দায়ের করেন।

এ বিষয়ে হাসানুর রহমান বলেন, কোনো বিদ্যুৎ বিল বকেয়া নেই। আগের সব বকেয়া পরিশোধ করে নতুন সংযোগ নিয়ে খামার গড়ে তুলি। কিন্তু বিদ্যুৎ অফিস থেকে না জানিয়েই সংযোগ বিচ্ছিন্ন করা হয়েছে। এতে প্রায় দুই লাখ টাকা ক্ষতি হয়েছে। এখন পথে বসার উপক্রম।

জানতে চাইলে রংপুর পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি-২ এর জেনারেল ম্যানেজার হারুন অর রশিদ বলেন, বিদ্যুৎ বিল বকেয়া না থাকার বিষয়টি সত্য নয়। লেজার বুকে তার ২৪ হাজার টাকা বকেয়া রয়েছে। হিট লিস্টে নাম থাকায় হেড অফিসের নির্দেশনা অনুযায়ী সংযোগ বিচ্ছিন্ন করা হয়েছে। অভিযোগ পাওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করে সদর কোতোয়ালি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোস্তাফিজার রহমান বলেন, বিষয়টি তদন্তকরা হচ্ছে।

Previous articleপরকীয়ার অপবাদ দিয়ে তিন সন্তানের জননী ও যুবককে গাছের সাথে বেঁধে নির্যাতন
Next articleসারাদেশে ডায়রিয়ায় আক্রান্ত ৩ লাখ, এক দিনে রোগী ভর্তির রেকর্ড
আজকের বাংলাদেশ ডিজিটাল নিউজ পেপার এখন দেশ-বিদেশের সর্বশেষ খবর নিয়ে প্রতিদিন অনলাইনে । ব্রেকিং নিউজ, জাতীয়, আন্তর্জাতিক রিপোর্টিং, রাজনীতি, বিনোদন, খেলাধুলা আরও অন্যান্য সংবাদ বিভাগ । আমাদের হাত বাধা নেই, আমাদের চোখ খোলা আমরা বলতে পারি ।