আহম্মদ কবির: সুনামগঞ্জের তাহিরপুর উপজেলায় আগাম বন্যায় ও হাওর ডুবির ঘটনায় একমাত্র বোর ফসল ঘরে তুলতে মরিয়া হয়ে উঠেছে হাওরপারের কৃষক।কিন্তু এ দুর্যোগ মুহুর্তে শ্রমিক সংকট ও অতিরিক্ত মজুরি কৃষকের গলার কাঁটা হয়ে দাঁড়িয়েছে। শ্রমিক সংকট ও অতিরিক্ত মজুরির কারণে দ্রুত জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে আধুনিক কৃষিযন্ত্র কম্বাইন্ড হারভেস্টার।

উপজেলা কৃষি অফিস সুত্রে জানাযায় চলতি মৌসুমে এ উপজেলায় বোর ধান চাষাবাদ হয়েছে ১৭হাজার ৪শত ৯৫ হেক্টর জমিতে। তারমধ্যে শিলাবৃষ্টি ব্লাস্ট ও উজান থেকে নেমে আসা পাহাড়ি ঢলে তলিয়ে ক্ষতি হয়েছে আনুমানিক ৩শত হেক্টর।

উপজেলার বোর ধানের ভান্ডার খ্যাত মাটিয়ান ও শনির হাওর পাড়ের একাধিক কৃষকের সাথে কথা বলে জানাযায় উজান থেকে নেমে আসা পাহাড়ি ঢলে বিভিন্ন হাওরের বাঁধ ভেঙ্গে ও উপচে পড়ে ফসল তলিয়ে যাওয়ার কারণে তারা এখন আতঙ্কে রয়েছেন,কখন জানি বাঁধ ভেঙ্গে তলিয়ে যায় একমাত্র বোর ফসল। তাই সবাই পাকা আধাপাকা ধান কাটতে মরিয়া হয়ে উঠেছে। কিন্তু শ্রমিক সংকট ও অতিরিক্ত মজুরির কারণে দিশেহারা অনেকেই।তাই সবাই যান্ত্রিকীকরণের দিকে ধাবিত হচ্ছে।ধানকাটা থেকে শুরু করে,ধান ছাঁটাই বা মাড়াই ও বস্তাভর্তি করা সবই এই মেশিন দিয়ে করা হয়।ফলে এই মেশিনের জনপ্রিয়তা বাড়ছে। তারা জানান এই দুর্যোগ মুহুর্তে যদি ধান কাটার মেশিন(,কম্বাইন্ড হারভেস্টা)না থাকতো আমাদের ফসল গড়ে তোলা সম্ভব হতনা। এই মেশিন দিয়ে দ্রুত সময়ের মধ্যে শ্রমিকের চেয়ে কম খরচে ধান কাটতে পেরেছেন।তারা জানান যদি এই মেশিন উপজেলার প্রত্যেকটি এলাকায় কৃষকদের মাঝে স্বল্পমূল্যে সরবরাহ করা হয় তবে কৃষকরা আরও লাভবান হবে।ধানের উৎপাদন বাড়বে এবং খরচ কমবে।

উপজেলা কৃষি অফিসের তথ্যসুত্রে জানাযায় কম্বাইন্ড হারভেস্টারে একজন শ্রমিক প্রতি ঘন্টায় ৩ থেকে ৪ বিঘা জমির ধান কাটতে পারে,এবং মাড়াই ছাঁটাই ও বস্তা ভর্তিকরণ করা যায়।এর বিপরীতে এই মেশিন দিয়ে প্রতি বিঘা ধান কাটতে খরচ হয় ১২থেকে সর্বোচ্চ ১৩শত টাকা।কিন্তু শ্রমিক দিয়ে ধান কাটলে প্রতি বিঘায় ৩থেকে ৪জন শ্রমিক লাগে,এছাড়াও ধান মাড়াই সহ নানা খরচ,এই হিসাবে অল্প সময়ে ধান কাটতে ও কৃষকের উৎপাদন ব্যয় কমাতেও সক্ষম এই আধুনিক কৃষিযন্ত্র।

উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা হাসান উদ-দৌলা বলেন এ উপজেলায় কৃষি অফিসের মাধ্যমে ৭০% ভর্তুকির মাধ্যমে ৪১টি কম্বাইন্ড হারভেস্টার দেওয়া হয়েছে। এছাড়াও বাহির হতে ৬টি কম্বাইন্ড হারভেস্টার ধান কাটছে। উনি বলেন কম্বাইন্ড হারভেস্টার যন্ত্রটি দিয়ে একজন শ্রমিক প্রতি ঘন্টায় ৩-৪ বিঘা জমির ধান কেটে একসাথে মাড়াই ছাঁটাই ও বস্তাবন্দি করতে পারে এতে খরচও কম হয়।

Previous articleপাঁচবিবিতে নির্যাতিত বিএনপি নেতাকর্মীর পরিবাবারের মাঝে ঈদ সামগ্রী বিতরণ
Next articleসাবেক এমপি বদির বিরুদ্ধে আ.লীগের ৩ নেতাকে মারধরের অভিযোগ
আজকের বাংলাদেশ ডিজিটাল নিউজ পেপার এখন দেশ-বিদেশের সর্বশেষ খবর নিয়ে প্রতিদিন অনলাইনে । ব্রেকিং নিউজ, জাতীয়, আন্তর্জাতিক রিপোর্টিং, রাজনীতি, বিনোদন, খেলাধুলা আরও অন্যান্য সংবাদ বিভাগ । আমাদের হাত বাধা নেই, আমাদের চোখ খোলা আমরা বলতে পারি ।