বাংলাদেশ প্রতিবেদক: নোয়াখালীর দ্বীপ উপজেলা হাতিয়ার জাহাজমারা ইউনিয়নের বিরবিরি গ্রামের ৬নং ওয়াড়ে স্বামীর অত্যাচারে গৃহবধুর মৃত্যু অভিযোগ উঠেছে। তবে বিজলীর পরিবার বলছে, যৌতুকের টাকা না দিতে পারায় তারা আমাদের মেয়েকে পিটিয়ে মেরে ফেলেছে।

জানা গেছে,দুই বছর আগে জাহাজমারা ইউনিয়নের পুর্ব বিরবিরি গ্রামের ৬নং ওয়াড়ের সোহরাবের ছেলে মো.মামুনের (২২) সঙ্গে উত্তর বিরবিরি গ্রামের আবুল কাশেমের মেয়ে বিজলী আক্তারের(২০) বিয়ে হয়। বিয়ের কয়েকদিন পর থেকে মামুন তার স্ত্রী বিজলি আক্তারকে যৌতুকের জন্য চাপ দেয়। বিজলী বিষয়টি তার পরিবারকে জানায়, তার পরিবার যৌতুক দিতে অপারগতা প্রকাশ করায়। তার উপর অত্যাচার বেড়ে যায়। পারিবারিক কলহের জের ধরে ঘরে কেউ না থাকায় শনিবার বেলা ১২ঘটিকার সময় রান্নাঘরে আড়ার সঙ্গে ওড়না পেছিয়ে বিজলি আক্তার আত্নহত্যা করছে বলে স্থানীয় ইউপি মেম্বার মিরাজ উদ্দিন জানান। তবে বিজলীর পরিবার বলছে যৌতুকের টাকা না দিতে পারায় তারা আমাদের মেয়েকে পিটিয়ে মেরে ফেলেছে।

হাতিয়া থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আমির হোসেনের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি জানান,প্রাথমিক ভাবে মেয়েটি আত্নহত্যা করেছে বলে ধারনা করা হচ্ছে । এ ঘটনায় কেউ কোন অভিযোগ করেনি। আমরা ঘটনাস্থলে যাচ্ছি বিস্তারিত জেনে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

Previous articleচারঘাটে ২২টি হান্টার বিয়ারসহ মাদক কারবারি গ্রেফতার
Next articleআমরা শক্ত ভিত্তির ওপর নির্বাচন করতে চাই: সিইসি
আজকের বাংলাদেশ ডিজিটাল নিউজ পেপার এখন দেশ-বিদেশের সর্বশেষ খবর নিয়ে প্রতিদিন অনলাইনে । ব্রেকিং নিউজ, জাতীয়, আন্তর্জাতিক রিপোর্টিং, রাজনীতি, বিনোদন, খেলাধুলা আরও অন্যান্য সংবাদ বিভাগ । আমাদের হাত বাধা নেই, আমাদের চোখ খোলা আমরা বলতে পারি ।