ফেরদৌস সিহানুক শান্ত: ফেলে যাওয়া বৃদ্ধা মাকে খাদ্যসামগ্রী ও নগদ অর্থ নিয়ে দেখতে গেলেন চাঁপাইনবাবগঞ্জের জেলা প্রশাসক একেএম গালিভ খাঁন। এসময় তিনি বৃদ্ধার শারিরীক অবস্থার খোঁজ-খবর নেন ও তার চিকিৎসা প্রদানসহ সকল ধরনের সহযোগিতা করার আশ্বাস দেন। রবিবার (০৪ সেপ্টেম্বর) সকালে চাঁপাইনবাবগঞ্জ পৌর এলাকার বালিগ্রাম মহল্লায় বৃদ্ধাকে দেখতে গিয়ে ফেলে যাওয়া ছেলের বিরুদ্ধে আইনী ব্যবস্থা নেয়ার কথা জানান একেএম গালিভ খাঁন।

বউয়ের সাথে বনিবনা না হওয়ায় মাকে রাস্তার পাশের একটি পরিত্যক্ত জায়গায় ফেলে যায় বৃদ্ধা মর্জিনা বেগমকে। শুক্রবার (০২ সেপ্টেম্বর) সকাল ১০টার দিকে চাঁপাইনবাবগঞ্জ পৌরসভার বালিগ্রামের একটি গলির পাশে অসুস্থ বৃদ্ধা মাকে ফেলে যায় ছেলে মনিরুল ইসলাম ও তার স্ত্রী। পরে স্থানীয়রা ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে ওই বৃদ্ধাকে উদ্ধার করেন। জেলা প্রশাসক সেই বৃদ্ধাকে দেখতে গিয়ে বিভিন্ন ফলমূল, চাল, পোশাক ও ওষুধসহ নগদ অর্থ প্রদান করেছেন।

এসময় জেলা প্রশাসক ছাড়াও আরও উপস্থিত ছিলেন, অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট দেবেন্দ্র নাথ উঁরাও, সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ইফফাত জাহান, সদর উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) নাইমা হক, জেলা পরিষদের সাবেক সদস্য ও জেলা কৃষকলীগের সহ-সভাপতি আব্দুল হাকিমসহ স্থানীয় বাসিন্দারা।

তিনি বলেন, ভুক্তভোগী খোরশেদ আলম সাগর একজন বুদ্ধি প্রতিবন্ধী। তার এই অসাহায়ত্বের সুযোগ নিয়ে তাকে অপহরণ করে পরিবারের কাছে মুক্তিপণ দাবি করে অপহরণকারীরা। র‍্যাবের নিকট ভুক্তভোগী পরিবারের অভিযোগ এবং বেগমগঞ্জ থানায় অপহরণ ও মুক্তিপণ দাবির মামলার সূত্র ধরে গোয়েন্দা তথ্যের ভিত্তিতে র‍্যাব অভিযান পরিচালনা চালিয়ে আসামিদের গ্রেফতার করে এবং ভূক্তভোগী সাগরকে উদ্ধার করে। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে আসামিরা খোরশেদ আলম সাগরকে অপহেণের ঘটনায় জড়িত থাকার কথা স্বীকার করে। গ্রেফতারকৃত আসামিদের বেগমগঞ্জ থানায় হস্থান্তর করা হয়েছে বলে জানায় র‍্যাব।

Previous articleপ্রতিবন্ধী যুবককে অপহরণ করে টাকা আাদায়ের চেষ্টা, গ্রেফতার ২
Next articleকলাপাড়ায় পীর সাহেবের কর্মকান্ড ফাঁস
আজকের বাংলাদেশ ডিজিটাল নিউজ পেপার এখন দেশ-বিদেশের সর্বশেষ খবর নিয়ে প্রতিদিন অনলাইনে । ব্রেকিং নিউজ, জাতীয়, আন্তর্জাতিক রিপোর্টিং, রাজনীতি, বিনোদন, খেলাধুলা আরও অন্যান্য সংবাদ বিভাগ । আমাদের হাত বাধা নেই, আমাদের চোখ খোলা আমরা বলতে পারি ।