বাংলাদেশ প্রতিবেদক: পঞ্চগড়ের আটোয়ারীতে মহানবী সা: এবং পবিত্র কোরআন শরিফ নিয়ে কটূক্তি ও অবমাননাকারী ফয়জুল হক (৪৫) পুলিশের সারাশি অভিযানে পঞ্চগড় আদালতে আত্মসমর্পণ করেছেন।

বুধবার (২১ সেপ্টেম্বর) সকালে ফয়জুল পঞ্চগড়ে আদালতে গিয়ে আত্মসমর্পণ করেন।

ফয়জুল উপজেলার তোড়িয়া ইউনিয়নের দারখোর ডুংডুংগী গ্রামের মৃত জিয়ার উদ্দিনের ছেলে।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, গত ১০ সেপ্টেম্বর সন্ধ্যায় এলাকার চিহ্নিত ফেনসিডিল ব্যবসায়ী ফয়জুল হক বেশ কয়েকদিন ধরে হাট বাজারসহ জনসমাগমস্থলে আল্লাহ তায়ালা ও বিশ্বনবী হজরত মোহাম্মদ সা:-কে অস্বীকার, তাদের সম্পর্কে নানান কটূক্তিসহ পবিত্র কোরআন শরিফকে অবমাননাকর কথা বলে আসছিলেন। শনিবার সন্ধ্যায় ডুংডুংগী বাজারে প্রকাশ্যে এরূপ কথাবার্তা বলতে থাকলে দাড়খোর গ্রামের মৃত মতিবদ্দীনের ছেলে শামসুল হক, মৃত কমিজ উদ্দীনের ছেলে মো: সাদ্দাম ও মসলিম উদ্দীনের ছেলে মো: হাসান আলী (৩০)-সহ বাজারে উপস্থিত ধর্মপ্রাণ মুসুল্লিরা এর প্রতিবাদ জানায় এবং ফয়জুলকে ঘিরে রেখে ৯৯৯-এ ফোন দেয়।

ঘটনাস্থলে পুলিশ উপস্থিত হওয়ার আগেই মানুষের ভিড়কে টপকে পালিয়ে যান ফয়জুল। পরে তার নামে আটোয়ারী থানায় একটি মামলা রুজু করা হয়। বেশ কয়েক দিন পুলিশ তাকে গ্রেফতারের জন্য বিভিন্ন স্থানে সারাশি অভিযান চালায়। অবশেষে পুলিশের ধারাবাহিক অভিযানের প্রেক্ষাপটে বাধ্য হয়ে ফয়জুল হক পঞ্চগড় আদালতে গিয়ে আত্মসমর্পণ করে। পরে আদালত ফয়জুলকে জেল হাজতে পাঠায়।

Previous articleইউএনও’র কক্ষে তরুণকে পেটালেন আনসার সদস্যরা
Next articleজিএম কাদেরকে যে নির্দেশনা দিলেন রওশন এরশাদ
আজকের বাংলাদেশ ডিজিটাল নিউজ পেপার এখন দেশ-বিদেশের সর্বশেষ খবর নিয়ে প্রতিদিন অনলাইনে । ব্রেকিং নিউজ, জাতীয়, আন্তর্জাতিক রিপোর্টিং, রাজনীতি, বিনোদন, খেলাধুলা আরও অন্যান্য সংবাদ বিভাগ । আমাদের হাত বাধা নেই, আমাদের চোখ খোলা আমরা বলতে পারি ।