সাহারুল হক সাচ্চু: সিরাজগঞ্জের উল্লাপাড়ায় কৃষি বিভাগ থেকে রোপা আমন ধান জমিতে আলোক ফাঁদ বসিয়ে পোকার উপস্থিতি আছে কিনা আর পোকার ধরণ , উপস্থিতি হার দেখে কৃষকদেরকে সচেতন ও করণীয় বিষয়ে পরামর্শ দেওয়া হচ্ছে। উপজেলার বিভিন্ন ইউনিয়নের রোপা আমন ধানের আবাদ হয়েছে সেসব ব্লকে রাতের বেলায় আলোক ফাঁদ বসিয়ে এসব দেখা হচ্ছে।

উপজেলা কৃষি অফিস থেকে জানানো হয় এবারের মৌসুমে সরকারী লক্ষ্যমাত্রার চেয়ে ২ হাজার ১৫ হেক্টর পরিমাণ বেশী জমিতে রোপা আমন ধানের আবাদ করা হয়েছে। সরকারী লক্ষ্যমাত্রা ছিলো ৯ হাজার ১২৫ হেক্টর। সেখানে আবাদ হয়েছে ১১ হাজার ১৪০ হেক্টর পরিমাণ জমিতে। আগাম করে আবাদ করা রোপা আমন ধানের ছড়া বেরিয়েছে। বেশীর ভাগ মাঠের ধান এখন থোড়মুখী। কৃষকেরা আগাম সতর্কতায় পোকার আক্রমণ না ঘটে ও ফলনের হার বেশী মেলাতে আবাদ করা রোপা আমন ধান জমিতে কীটনাশক ও অন্যান্য ঔষধ স্প্রে করছেন। এদিকে কৃষি বিভাগ থেকে কৃষকদেরকে সচেতনতা ও করণীয় পরামর্শ দেওয়া হচ্ছে।

উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা সূবর্ণা ইয়াসমিন সুমী প্রতিবেদককে বলেন গত দিন চারেক হলো উপজেলার বিভিন্ন এলাকার মাঠে ( কৃষি অফিসের ব্লকে ) রাতের বেলায় আলোক ফাঁদ বসিয়ে পোকার উপস্থিতি আছে কিনা , থাকলে করণীয় বিষয়ে কৃষকদেরকে সচেতন করা ও পরামর্শ দেওয়া হচ্ছে। এছাড়া আলোক ফাদে ফসলের জমির পোকা দমন হয়ে থাকে। তবে সব পোকা ফসলের ক্ষতি করে না বলে জানানো হয় ।

উপজেলার বাখুয়া ব্লকে আলোক ফাঁদ বসিয়ে পোকার উপস্থিতি দেখতে তার সাথে কৃষক মানিকসহ কৃষি বিভাগের অন্যান্য কর্মকর্তাগণ উপস্থিত ছিলেন।

Previous articleসুবর্ণচরে শতভাগ প্রাতিষ্ঠানিক ডেলিভারি নিশ্চিত করার লক্ষ্যে আলোচনা সভা
Next articleধর্মঘটের বিষয়ে আমরা কিছু জানি না: বিআরটিএ চেয়ারম্যান
আজকের বাংলাদেশ ডিজিটাল নিউজ পেপার এখন দেশ-বিদেশের সর্বশেষ খবর নিয়ে প্রতিদিন অনলাইনে । ব্রেকিং নিউজ, জাতীয়, আন্তর্জাতিক রিপোর্টিং, রাজনীতি, বিনোদন, খেলাধুলা আরও অন্যান্য সংবাদ বিভাগ । আমাদের হাত বাধা নেই, আমাদের চোখ খোলা আমরা বলতে পারি ।