মাসুদ রানা রাব্বানী: ব্রাহ্মণবাড়িয়া থেকে হারিয়ে যাওয়া দুই শিশুকে উদ্ধার করে মায়ের কোলে ফিরিয়ে দিয়েছে পুলিশ। নিখোঁজ সন্তানকে ফিরে পেয়ে আনন্দে আত্মহারা শিশু দুটির বাবা-মা। রবিবার (২৩ অক্টোবর) দুপুর আড়াইটায় রাজশাহী মহানগরীর কাটাখালী থানার এসআই মোঃ মিজানুর রহমান শিশু দুটি-কে তাদের বাবা-মার হাতে তুলে দেন।

শিশু দু’টি হলো: ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলার সদর থানার ভাদুঘরের মোঃ বাসেদের ছেলে মোঃ উসমান গণি (৮) ও সরাইল থানার কাজীপাড়ার মোঃ দুলালের ছেলে মোঃ ইব্রাহিম (৮)। এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন নগর পুলিশের মুখপাত্র অতিরিক্ত উপ-পুলিশ কমিশনার মোঃ রফিকুল আলম।

তিনি জানান, শুক্রবার (২১ অক্টোবর) বিকাল সাড়ে ৪ টায় রাজশাহী মহানগরীর কাটাখালী থানার হরিয়ান রুপসীডাঙ্গা এলাকার মোঃ উজ্জল হোসেন হরিয়ান প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সামনে দু’টি শিশুকে ঘোরাফেরা করতে দেখেন। উজ্জল হোসেন শিশু দুটিকে জিজ্ঞাসাবাদ করলে তারা কোনো ঠিকানা বলতে পারে না। পরে তিনি ৯৯৯-এ ফোন করে বিষয়টি জানান। ৯৯৯-এর ফোন পেয়ে কাটাখালী থানার এএসআই মোঃ মেজবাহুল হক ও সঙ্গীয় ফোর্স ঘটনাস্থলে গিয়ে শিশু দুটিকে উদ্ধার করে থানায় নিয়ে যান। এরপর এসআই মোঃ মিজানুর রহমান শিশু দুটিকে ভিকটিম সাপোর্ট সেন্টারে প্রেরণ করেন। পরবর্তীতে পুলিশ পরিদর্শক(তদন্ত) মোঃ আব্দুর রাজ্জাকের নেতৃত্বে এসআই মোঃ মিজানুর রহমান তাদের টিম হারানো শিশু দু’টির পরিবারের সন্ধান পেতে কাজ শুরু করেন।

এদিকে ভিকটিম সাপোর্ট সেন্টারের এসআই ফাতেমাতুজ জোহুরা ইতি শিশু দুইটির সাথে বন্ধুসুলভ আচরণ করে তাদের ঠিকানা জানার চেষ্টা করেন। শিশু দুটি তাদের বাড়ি ব্রাহ্মণবাড়িয়া বলে জানায়। আর তেমন কিছু বলতে না পারলেও শিশু উসমান তার মাদ্রাসার এক শিক্ষকের মোবাইল ফোন নম্বর বলতে পারে। শিশু ইব্রাহিম তাদের গ্রামের বাড়ি সরাইল কাজীপাড়ার মাজার এলাকায় বলে জানায়। ভিকটিম সাপোর্ট সেন্টার উসমানের শিক্ষকের সাথে যোগাযোগ করেন। মাদ্রাসা শিক্ষক উসমানকে চিনলেও শিশু ইব্রাহিমকে চিনেন না বলে জানান। পরবর্তীতে ভিকটিম সাপোর্ট সেন্টার সেই মাদ্রাসা শিক্ষকের মাধ্যমে ওসমানের বাবা-মায়ের সাথে যোগাযোগ করেন। আর ইব্রাহিমের পরিচয় জানতে উসমানের বাবা-মায়ের মাধ্যমে সরাইল কাজীপাড়া এলাকার মাজার ও মসজিদে মাইকিং করানো হয়। এভাবে ইব্রাহিমের পরিবার তার সন্ধান পায়। এভাবে শিশু উসমান ও ইব্রাহিমের পরিবারের খোঁজ পায় আরএমপি’র ভিকটিম সাপোর্ট সেন্টার।

হারিয়ে যাওয়া শিশু উসমানের বাবা জানান, তিনি গত (২০ অক্টোবর) বাড়ি হতে কাজের জন্য ঢাকার উদ্দেশ্যে রওনা হন। কিছুক্ষণ পর শিশু উসমানও তাকে অনুসরণ করে বাড়ি হতে বের হয়ে ব্রাহ্মণবাড়িয়া রেল স্টেশনে আসে। সেখানে অপর শিশু ইব্রাহিমের সাথে তার পরিচয় হয়। তারা দুজন একত্রে ট্রেনে উঠে কমলাপুর রেল স্টেশনে নামে। আবার তারা বাড়ি ফেরার জন্য ভুল করে রাজশাহীর ট্রেনে উঠে। শিশু দুইটিকে ফিরে পেয়ে তাদের বাবা-মা অত্যন্ত আনন্দিত। তারা কাটাখালী থানা পুলিশ, আরএমপি’র ভিকটিম সাপোর্ট সেন্টারসহ আরএমপি পুলিশ কমিশনার আবু কালাম সহ সংশ্লিষ্ট সকলকে ধন্যবাদ জানিয়ে কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেছেন।

Previous articleবিএনপির বিরুদ্ধে আসল খেলা হবে ডিসেম্বরে: ওবায়দুল কাদের
Next articleজবি উপাচার্যকে সাদা দলের ৭ প্রস্তাব
আজকের বাংলাদেশ ডিজিটাল নিউজ পেপার এখন দেশ-বিদেশের সর্বশেষ খবর নিয়ে প্রতিদিন অনলাইনে । ব্রেকিং নিউজ, জাতীয়, আন্তর্জাতিক রিপোর্টিং, রাজনীতি, বিনোদন, খেলাধুলা আরও অন্যান্য সংবাদ বিভাগ । আমাদের হাত বাধা নেই, আমাদের চোখ খোলা আমরা বলতে পারি ।