মিজানুর রহমান বুলেট: ২০ নভেম্বর শুরু হচ্ছে বিশ্বকাপ ফুটবল, এ বিশ্বকাপকে ঘিরে সারা বিশ্বের মতো দেশের দক্ষিন উপকূল এলাকা কলাপাড়ায় ফুটবল প্রিয় দর্শক-সমর্থকদের মধ্যে চলছে টানটান উত্তেজনা- উম্মাদনা, কথামালার ফুলঝুড়ি ও বাক-বিতন্ডা, দোকান-পাটে দেদারছে বিক্রী হচ্ছে প্রিয় দল ও প্রিয় খেলোয়ারের জার্সি।

এলাকায় বহুতল বাড়ির ছাদ, দোকান, অফিস, স্টেশনে উড়ছে আর্জেন্টিনা-ব্রাজিল, জার্মানী, ফ্রান্স, পর্তুগাল, স্পেনসহ প্রিয়দলের পতাকা। কাউন্ট ডাউনের মধ্যেদিয়ে বিশ্বের সাথে তাল মিলিয়ে রোমাঞ্চের জন্য অধির আগ্রহে রয়েছেন বাংলাদেশী ক্রিড়াপ্রেমীরাও। এরই মাঝে পছন্দের দলকে সমর্থন জানিয়ে দেশভিত্তিক জার্সি ও পতাকা গায়ে জড়িয়ে তার ছবি তুলে স্যোসাল মিডিয়ায় পোষ্ট করছেন অনেকই। বৃহস্পতিবার সরেজমিনে ঘুরে দেখা যায়, বিভিন্ন রসরঙ ও তর্ক-বিতর্কে জড়িয়ে পছন্দের দলকে এগিয়ে রাখতে চাইছেন শুভাকাঙ্খী-সমর্থকরা।

তুলনামূলকভাবে আর্জেন্টিনা ও ব্রাজিলের সমর্থক সংখ্যাই অনেক বেশি থাকায় দুই দেশের পতাকা কিনছেন ছোট-বড় সব বয়সী মানুষ, উড়াচ্ছে বাড়ির ছাদে ও আকর্ষনীয় জায়গায়। পাড়া-মহল্লার হোটেলের চায়ের কাপেও ঝড় উঠছে পছন্দের প্রিয় দলের প্রিয় তারকা খেলোয়ারদের নিয়ে। এসব পতাকা বিক্রেতা রহিম মোল্লা জানায়, এখানে বেশীরভাগই বিক্রি হচ্ছে আর্জেন্টিনা, ব্রাজিলের পতাকা। প্রতি বিশ্বকাপ ফুটবলের সময় খুলনা জেলার কসবা থেকে এসে কলাপাড়ায় ঘুরে ঘুরে পতাকা বিক্রি করছেন। গত ২০ বছর ধরে বিভিন্ন দিবস ও বিশ্বকাপ ফুটবল-ক্রিকেট খেলার সময় পতাকা বিক্রি করে অতিরিক্ত আয় করেন তিনি। শনিবার দিনব্যাপী এলঅকার বিভিন্ন অলি-গলি ও পাড়ায়-মহল্লঅয় ঘুরে ঘুরে বাশেঁর সাথে পতাকা বেঁধে বিক্রি করছিলেন তিনি। বাঁশে বাঁধা আর্জেন্টিনা-ব্রাজিলের ছোট পতাকা ৩০ টাকা, বড় সাইজের পতাকা ১০০/২০০ টাকায় বিক্রি করছেন। কখনো কখনো চিৎকার দিচ্ছেন, কারো লাগবে আর্জেন্টিনা, ব্রাজিল….! এ চিৎকার শুনেই ছুটে আসছে বিভিন্ন শ্রেনী-পেশার মানুষ।

রহিম মোল্লা আরো জানান, খুলনা থেকে প্রতিপিচ মাঝারি পতাকা ৪০/৫০ টাকা দরে কিনে মফস্বলে ১০০/২০০ টাকায় বিক্রি করছেন তিনি। তবে অনেক ক্রেতাই ১০০/২০০ টাকায় মাঝারি পতাকা কিনলেও ছোট পতাকার কোর দর নেই, সেগুলো এক দরে ২০/৩০ টাকায় বিক্রি হয় শতাধিক পতাকা। এই বিশ্বকাপে লক্ষাধিক টাকার পতাকা বিক্রি করবেন বলে আশাবাদি তিনি। পতাকা কিনতে আসা মুদি ব্যবসায়ী হারিস গাজী জানান, প্রিয় দল আর্জেন্টিনা, তাই পরিবারের একেবারে ছোট সদস্যের জন্য ছোট পতাকা বেশী করে নিয়েছেন ১০টি। তবে ১ টা মাঝারি সাইজের আর্জেন্টিনার পতাকা কিনেছেন তার বাড়ির সামনে গাছে বেঁধে দেবেন বলে। এসব ফুটবল প্রেমীদের দাবী, আগামী আরো ২/১ সপ্তাহ দেশের প্রত্যন্ত এলঅকার পথে-ঘাটে, দোকানে বিক্রি হবে আর্জিন্টনা ব্রাজিলের পতাকা ও জার্সি।

Previous articleময়মনসিংহে ৯০০ পিস ইয়াবাসহ মাদক ব্যবসায়ী গ্রেফতার
Next articleজানুয়ারি থেকে বৈদেশিক মুদ্রার সঙ্কট থাকবে না: বাংলাদেশ ব্যাংকের গভর্নর
আজকের বাংলাদেশ ডিজিটাল নিউজ পেপার এখন দেশ-বিদেশের সর্বশেষ খবর নিয়ে প্রতিদিন অনলাইনে । ব্রেকিং নিউজ, জাতীয়, আন্তর্জাতিক রিপোর্টিং, রাজনীতি, বিনোদন, খেলাধুলা আরও অন্যান্য সংবাদ বিভাগ । আমাদের হাত বাধা নেই, আমাদের চোখ খোলা আমরা বলতে পারি ।