বাংলাদেশ প্রতিবেদক: মুন্সীগঞ্জের গজারিয়া উপজেলার হোসেন্দী ইউপি উপনির্বাচনে পরাজিত স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান প্রার্থীর এক নারী সমর্থক মাহফুজা বেগম (৩০) কে রাস্তায় ফেলে হাতুড়ি দিয়ে পিটিয়ে গুরুতর আহত করেছে দুর্বৃত্তরা।

গেল বৃহস্পতিবার সন্ধ্যা সাড়ে ৭টার দিকে জামালদী-হোসেন্দী সড়কের নাজমা জেনারেল হাসপাতালের সামনে এই ঘটনা ঘটে। আহত মাহফুজা বেগম হোসেন্দী ইউনিয়নের হোসেন্দী (পূর্বপাড়া) বাসিন্দা মো. সফিকুল ইসলামের স্ত্রী।

গেল ২নভেম্বর অনুষ্ঠিত হোসেন্দী ইউপি উপনির্বাচনে পরাজিত স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান প্রার্থী হাজী মাহবুব মিয়ার সমর্থনকারী ছিলেন। এ ঘটনায় শুক্রবার দুপুরে ১২জনের নাম অন্তর্ভুক্ত করে অজ্ঞাত ৪-৫ জনের বিরুদ্ধে একটি অভিযোগ দায়ের করেন আহত মাহফুজা বেগম এর স্বামী সফিকুল ইসলাম।

আহত মাহফুজা বেগম জানান, আমার স্বামী কে নিয়া জামালদি নাজমা জেনারেল হাসপাতালে যাই। পথে মধ্যে জয়ী চেয়ারম্যান নৌকার সর্মথনকারী স্বপন, আমির হোসেন, রিফাত সহ ১৬ -১৭ জন দেশীয় অস্ত্রসস্ত্রে সজ্জিত হয়ে পথরোধ করে অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করে।

একপর্যায়ে আমার স্বামী তাদের ভয়ে দৌড়াইয়া কোন রকমে সে রক্ষা পায়। সন্ত্রাসীরা আমার পড়নের বোরকা ধরিয়া টানা হিচড়া করে হাতুড়ি দিয়ে এলোপাথারী ভাবে পিটিয়ে এবং গোপনাঙ্গে ও তলপেটে স্ব-জোরে লাথি মেরে গুরুতর করে।পরে পথচারীরা আমাকে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গিয়ে ভর্তি করে।

এ বিষয়ে জানতে অভিযুক্ত স্বপন মিয়ার মোবাইলে একাধিকবার ফোন করলেও তিনি রিসিভ করেননি।

উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের জরুরি বিভাগের চিকিৎসক আবাসিক মেডিকেল অফিসার ডা. আশরাফুল ইসলাম মৃধা বলেন, মারধরের ঘটনায় এক নারী হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন। তার শরীরে আঘাতের চিহ্ন রয়েছে।

এ ব্যাপারে গজারিয়া থানার অফিসার ইনচার্জ ওসি মোল্লা সোয়েব আলী বলেন, অভিযোগ পেয়েছি তদন্ত সাপেক্ষে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

Previous articleজনগণের উত্তাল তরঙ্গে আ’লীগ ভেসে যাবে: মির্জা ফখরুল
Next articleসব বাধা পেরিয়ে রাতেই সিলেট সমাবেশে কর্মীদের ঢল
আজকের বাংলাদেশ ডিজিটাল নিউজ পেপার এখন দেশ-বিদেশের সর্বশেষ খবর নিয়ে প্রতিদিন অনলাইনে । ব্রেকিং নিউজ, জাতীয়, আন্তর্জাতিক রিপোর্টিং, রাজনীতি, বিনোদন, খেলাধুলা আরও অন্যান্য সংবাদ বিভাগ । আমাদের হাত বাধা নেই, আমাদের চোখ খোলা আমরা বলতে পারি ।