বাংলাদেশ প্রতিবেদক: মোঃ জালাল উদ্দিন।সিলেট শহরের সাথে রাজধানী ঢাকা সহ বিভিন্ন এলাকার সরাসরি বাস যোগাযোগ বন্ধ হয়ে গেছে, যদিও সিলেটে পরিবহন ধর্মঘট হওয়ার কথা ছিলো আজ।

আজই সিলেটের চৌহাট্টা এলাকায় আলিয়া মাদ্রাসা মাঠে বিএনপির বিভাগীয় সমাবেশ অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা রয়েছে।

সমাবেশে যোগ দিতে ঢাকা থেকে কেন্দ্রীয় নেতাদের একটি বড় অংশ মধ্যরাতেই সিলেটে আলিয়া মাদ্রাসা মাঠে সমাবেশে পৌঁছেছেন।

যুবদলের কেন্দ্রীয় কমিটির সাংগঠনিক সম্পাদক ইসহাক সরকার বলেন, সংসদকে বিলুপ্ত করে, সরকারকে পদত্যাগ করে তত্ত্বাবধায়ক সরকারের হাতে ক্ষমতা দিয়ে তার দায়িত্বে নতুন নির্বাচন কমিশন গঠন করতে হবে। সেই নির্বাচন কমিশনের মাধ্যমে নতুন করে নির্বাচন হবে এবং সেই নির্বাচনের মাধ্যমে সকলের গ্রহণযোগ্যতার ভিত্তিতে সরকার গঠন করবে।

ওই সমাবেশে তিনি আরও বলেন, দ্রব্যমূল্যের দাম বাড়ার কারণে জন দুভোর্গ, বিদ্যুৎ ও জ্বালানি সংকট, বিএনপি নেতাদের ওপর গুম খুন নির্যাতন, সরকারি নেতাদের দুর্নীতি ও দায়িত্ব পালনে অবহেলাসহ আরও বিষয়ে বক্তব্য রাখেন।

বিভাগীয় সমাবেশের কর্মসূচির অংশ হিসেবে সিলেটে হতে যাচ্ছে বিএনপির ষষ্ঠ সমাবেশ। এর আগে দলটি চট্টগ্রাম, খুলনা, ময়মনসিংহ, রংপুর ও ফরিদপুরে সমাবেশ করেছে।

নির্দলীয় সরকারের অধীনে আগামী সংসদ নির্বাচন, বর্তমান সরকারের পদত্যাগ ও দলের চেয়ারপার্সন খালেদা জিয়ার মুক্তিসহ বিভিন্ন দাবিতে ধারাবাহিক সমাবেশের কর্মসূচি পালন করছেন দেশের অন্যতম প্রধান রাজনৈতিক দল বিএনপি।

বিএনপির সমাবেশের কর্মসূচি শুরু হয়েছিলো চট্টগ্রাম থেকে। আর এটি শেষ হওয়ার কথা আগামী দশই ডিসেম্বর ঢাকায় অনুষ্ঠিতব্য সমাবেশের মধ্য দিয়ে।

এর মধ্যে চট্টগ্রামের সমাবেশটি নির্বিঘ্নে হলেও এরপর থেকে প্রতিটি সমাবেশের আগেই স্থানীয়ভাবে পরিবহন ধর্মঘট দিয়ে যানবাহন চলাচল বন্ধ বা সীমিত করে দেয়া হয়েছিলো।

সিলেটেও শনিবার একই ধরণের বাস ধর্মঘট ডেকেছে মালিক শ্রমিকদের একটি অংশ। এ কারণে দুদিন আগে থেকেই বিভিন্ন জেলা উপজেলা থেকে সিলেটের দিকে আসতে শুরু করে দলটির নেতা, কর্মী ও সমর্থকরা।
বাস ধর্মঘট শনিবার থেকে হওয়ার কথা থাকলেও ওই অঞ্চলের অন্য জেলা অর্থাৎ হবিগঞ্জ, মৌলভীবাজার ও সুনামগঞ্জের সাথে সিলেট শহরের সব ধরণের যান চলাচল গতকাল শুক্রবার থেকেই বন্ধ হয়ে গেছে।
সাংবাদিক মোঃ জালাল উদ্দিন বলছেন, গত সকাল থেকেই শহরে বাস কাউন্টারগুলো বন্ধ দেখতে পেয়েছেন তিনি।
তিনি বলছেন যে পরিবহন সংকটের মধ্যেই বিএনপির নেতাকর্মীরা বিভিন্ন এলাকা থেকে মিছিলসহ আসতে শুরু করেছেন।

সমাবেশ স্থলে রাতেও ক্যাম্প করে অবস্থান করেছেন মৌলভীবাজার, সুনামগঞ্জ ও হবিগঞ্জসহ কয়েকটি এলাকা থেকে আসা নেতাকর্মীরা।

এদিকে বৃহস্পতিবার ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের একটি সহযোগী সংগঠনের মিছিল-সমাবেশের কর্মসূচিকে কেন্দ্র করে সিলেটে কিছুটা উত্তেজনা তৈরি হলেও শেষ পর্যন্ত কোনো অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটেনি।

Previous articleগজারিয়ায় পরাজিত চেয়ারম্যান প্রার্থীর নারী সমর্থককে হাতুড়ি দিয়ে পিটিয়ে জখম
Next articleনোয়াখালীতে একনলা বন্দুকসহ গ্রেফতার ১
আজকের বাংলাদেশ ডিজিটাল নিউজ পেপার এখন দেশ-বিদেশের সর্বশেষ খবর নিয়ে প্রতিদিন অনলাইনে । ব্রেকিং নিউজ, জাতীয়, আন্তর্জাতিক রিপোর্টিং, রাজনীতি, বিনোদন, খেলাধুলা আরও অন্যান্য সংবাদ বিভাগ । আমাদের হাত বাধা নেই, আমাদের চোখ খোলা আমরা বলতে পারি ।