সোমবার, এপ্রিল ২২, ২০২৪
Homeসারাবাংলাঈদের তৃতীয় দিনে কুয়াকাটায় পর্যটকের ঢল

ঈদের তৃতীয় দিনে কুয়াকাটায় পর্যটকের ঢল

মিজানুর রহমান বুলেট: ঈদের তৃতীয় দিনে পর্যটকের ঢল নেমছে কুয়াকাটা সমুদ্র সৈকতে। ঝাউবাগান, শুটকি পল্লী, গঙ্গামতি, লেম্বুরবন, বৌদ্ধ বিহার ও রাখাইন মার্কেটসহ সকল পর্যটন স্পটে এখন পর্যটকদের আনাগোনা। ঈদের আনন্দ উপভোগ করতে গত শনিবার থেকে এসকল পর্যটকের আগমন ঘটে সৈকতে। আগত পর্যটকদের ভীড়ে প্রানচাঞ্চল্যতা ফিরেছে পর্যটন সংশ্লিষ্ট ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে। বুকিং রয়েছে কুয়াকাটার শতভাগ হোটেল মোটেলের কক্ষ। যে কোন ধরনের অপ্রতিকর ঘটনা এড়াতে সৈকত এলাকায় ট্যুরিষ্ট পুলিশের তৎপরতা লক্ষ করা গছে।

ঢাকা থেকে আসা পর্যটক মইন বলেন, সেই কুয়াকাটায় আসতাম ৮/৯ টি ফেরিপার হয়ে,আজকে এসে এত পর্যটক দেখে আমরা হতবাগ,প্রায় লক্ষাধীক পর্যটক হবে।আজকে কুয়াকাটার ভাগ্য খুলে গেছে,এর অবদান শেখ হাসিনার, পদ্মা সেতুর উদ্বোধনের পরই কুয়াকাটায় পর্যটক বেড়ে গেছে।

খাবার হোটেল ব্যবসায়ী কলিম আহম্মেদ বলেন রমজানের কারনে দীর্ঘ একমাস হোটেল বন্ধ ছিল,এখন ঈদ উপলক্ষে ব্যাপক পর্যটকের আগমন ঘটেছে। সকল ব্যবসায়ীর মুখে হাসি ফুটেছে। আগে পর্যটক ছিল সিজোনাল আর এখন বারোমাস, এটা পদ্মা সেতুর সুফল। হোটেল মোটেল অউনার এসোসিয়েশনর সাধারণ সম্পাদক মোঃ মোতালেব শরীফ বলেন, আমাদের হোটেল গুলোর বেশীরভাগ রুমই বুকি হয়ে গেছে। আমরাও পর্যটকদের নিরাপত্তা জোরদার করেছি।

টুরিস্ট পুলিশ জোনের ওসি হাসনাইন পারভেজ বলেন, আজকে কুয়াকাটায় ব্যাপক পর্যটকের আগমন ঘটেছে। আমরা তাদের নিরাপত্তার জন্য পর্যটন স্পট গুলোতে টহল পুলিশ ডিউটিতে রেখেছি। কলাপাড়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ জাহাঙ্গীর হোসেন বলেন, পর্যটকের নিরাপত্তার জন্য মহিপুর থানা পুলিশ, টুরিস্ট পুলিশ, নৌ-পুলিশ সার্বক্ষনিক ডিউটিতে আছে। খাবার হোটেল ও আবাসিক হোটেল গুলোও পর্যটকের সেবায় নিয়োজিত। পর্যটকের সেবার কথা চিন্তা করে কুয়াকাটা পৌর বাসষ্টান আপাতত খুলে দেয়া হয়েছে।

আজকের বাংলাদেশhttps://www.ajkerbangladesh.com.bd/
আজকের বাংলাদেশ ডিজিটাল নিউজ পেপার এখন দেশ-বিদেশের সর্বশেষ খবর নিয়ে প্রতিদিন অনলাইনে । ব্রেকিং নিউজ, জাতীয়, আন্তর্জাতিক রিপোর্টিং, রাজনীতি, বিনোদন, খেলাধুলা আরও অন্যান্য সংবাদ বিভাগ । আমাদের হাত বাধা নেই, আমাদের চোখ খোলা আমরা বলতে পারি ।
RELATED ARTICLES
- Advertisment -

Most Popular

Recent Comments