রবিবার, জুলাই ২১, ২০২৪
Homeসারাবাংলাবগুড়ায় সংঘবদ্ধভাবে ধর্ষণের পর গায়ে আগুন, মাদ্রাসা শিক্ষার্থীর মৃত্যু

বগুড়ায় সংঘবদ্ধভাবে ধর্ষণের পর গায়ে আগুন, মাদ্রাসা শিক্ষার্থীর মৃত্যু

বাংলাদেশ প্রতিবেদক: বগুড়ার শিবগঞ্জ উপজেলায় ধর্ষণের পর গায়ে আগুন ধরিয়ে দিয়ে গুরুতর আহত করা সেই মাদ্রাসা শিক্ষার্থীর ৪০ দিন চিকিৎসাধীন থাকার পর মঙ্গলবার রাতে রাজধানীর শেখ হাসিনা জাতীয় বার্ন ও প্লাস্টিক সার্জারি ইনস্টিটিউটে ওই শিক্ষার্থীর মৃত্যু হয়েছে।

নিহতের নাম মারুফা খাতুন। বয়স ২০ বছর। মারুফা শিবগঞ্জ উপজেলার আটমূল ইউনিয়নের নান্দুড়া গ্রামের মাসুদুর রহমানের মেয়ে এবং স্থানীয় মাদ্রাসার আলিম প্রথম বর্ষের ছাত্রী ছিলেন। এসব তথ্য নিশ্চিত করেছেন শিবগঞ্জ থানার ওসি আব্দুর রউফ। এ ঘটনায় শিবগঞ্জ থানায় মামলা দায়ের হয়েছে।

মামলা সূত্রে জানা গেছে, গত ৭ সেপ্টেম্বর শুক্রবার জুম্মার দুপুরে বাড়িতে কেউ না থাকায় তিনজন ওই কিশোরীকে সংঘবদ্ধভাবে ধর্ষণ করে। পরে হত্যার উদ্দেশ্যে কিশোরীর গায়ে আগুন ধরিয়ে দেয় তারা। তার আত্মচিৎকারে স্থানীয়রা তাকে উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করায়। কিন্তু অবস্থা খারাপ হলে শেখ হাসিনা জাতীয় বার্ন ও প্লাস্টিক সার্জারি ইনস্টিটিউটে নিয়ে যায় স্বজনেরা।

এ ঘটনায় গত ৯ সেপ্টেম্বর শিবগঞ্জ থানায় মারুফার বাবা মাসুদুর রহমান বাদী হয়ে ৩ জনকে আসামী করে ধর্ষণ মামলা দায়ের করে। পুলিশ এ মামলায় সাইফুল ইসলাম নামের এক জনকে গ্রেপ্তার করে। মামলার বাকি দুই আসামী রঞ্জু ও নাঈম পলাতক রয়েছে।

মারুফার চাচা কামরুজ্জামান জানান, ভাতিজি মারুফার শারীরিক অবস্থা মঙ্গলবার দুপুরের দিকে অবনতি হতে থাকে। এক পর্যায়ে জ্ঞান হারিয়ে ফেলে৷ পরে রাতে মারুফা মারা যায়।

এ বিষয়ে শিবগঞ্জ থানার ওসি আব্দুর রউফ জানান, চিকিৎসাধীন অবস্থায় মাদ্রাসা শিক্ষার্থী মারা গেছে। মরদেহ বগুড়ায় আনার পর ময়নাতদন্ত করা হবে।

আজকের বাংলাদেশhttps://www.ajkerbangladesh.com.bd/
আজকের বাংলাদেশ ডিজিটাল নিউজ পেপার এখন দেশ-বিদেশের সর্বশেষ খবর নিয়ে প্রতিদিন অনলাইনে । ব্রেকিং নিউজ, জাতীয়, আন্তর্জাতিক রিপোর্টিং, রাজনীতি, বিনোদন, খেলাধুলা আরও অন্যান্য সংবাদ বিভাগ । আমাদের হাত বাধা নেই, আমাদের চোখ খোলা আমরা বলতে পারি ।
RELATED ARTICLES
- Advertisment -

Most Popular

Recent Comments