বাংলাদেশ ডেস্ক: এই ঈদে ভারতের পশ্চিমবঙ্গের ব্যারাকপুরের বিধায়ক ও বিশিষ্ট চলচ্চিত্র পরিচালক রাজ চক্রবর্তী টিটাগড়ে একটি মসজিদে যান। সেখানে সকলের সাথে ঈদের শুভেচ্ছা আদান-প্রদান করার পরই মাজারে মাথা ঠেকিয়ে দোয়া করেন। সেই ছবিই ভাইরাল হয়ে যায় সোশ্যাল মিডিয়ায়। নিজের ধর্মকে অপমান করেছেন রাজ, একের পর এক তির্যক মন্তব্য ধেয়ে আসে তার দিকে।

বিতর্কের মুখে কী বলছেন বিধায়ক-পরিচালক? রাজ চক্রবর্তী জি ২৪ ঘণ্টা ডিজিটালকে জানান, ‘আমি কখনোই কমেন্ট বক্স দেখি না। আমাকে একজন গতকাল এই বিতর্কের কথা জানান, আমি এগুলো নিয়ে বিশেষ ভাবি না। আমি কি করব, কি পরব, তা নিয়ে কাউকে কৈফিয়ত দেব না। ট্রোলারদের কথার উত্তর দেয়ারও প্রয়োজন মনে করি না। আমি গুরুদ্বারে গেলে মাথায় রুমাল বাঁধি, মাজারে গেলে টুপি পরি। গণতান্ত্রিক দেশে আমার পূর্ণ অধিকার আছে, আমি আমার যা মনে হবে তাই করব।’

রাজ আরো বলেন, ‘আগামী দিনেও টুপি পরে মসজিদে যাব। আমার কাছে মনুষ্যত্বই ধর্ম। কার কি ধর্ম হবে সেটা তো তার হাতে থাকে না, তাহলে জন্মের আগেই জানিয়ে দাওয়ার চেষ্টা কর, তুমি জন্মের পর এই ধর্ম পাবে। সে রাজি হলে তবেই জন্মাক। সেটা যখন সম্ভব নয়, তখন কারোর জ্ঞান শুনব না। যারা কটূকথা বলছেন সেটা তাদের রুচিবোধের ব্যাপার, আমি কাউকে উত্তর দিতে চাই না। কোনো কৈফিয়ত দেব না।’

সূত্র : জি নিউজ

Previous articleআমরা শ্রীলঙ্কাকে যতটা সম্ভব সহায়তা করতে প্রস্তুত: পররাষ্ট্রমন্ত্রী
Next article১২ কেজি সিলিন্ডারের এলপিজির দাম কমল
আজকের বাংলাদেশ ডিজিটাল নিউজ পেপার এখন দেশ-বিদেশের সর্বশেষ খবর নিয়ে প্রতিদিন অনলাইনে । ব্রেকিং নিউজ, জাতীয়, আন্তর্জাতিক রিপোর্টিং, রাজনীতি, বিনোদন, খেলাধুলা আরও অন্যান্য সংবাদ বিভাগ । আমাদের হাত বাধা নেই, আমাদের চোখ খোলা আমরা বলতে পারি ।