বাংলাদেশ প্রতিবেদক: ফেব্রুয়ারির আগেই টিকা প্রয়োগ শুরু হতে পারে বলে জানিয়েছেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক। জানান, এয়ার ইন্ডিয়ার বিশেষ ফ্লাইটে আসছে এ ভ্যাকসিন।

মঙ্গলবার (১৯ জানুয়ারি) দুপুরে স্বাস্থ্য অধিদফতরে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক এ কথা জানান।

তিনি বলেন, বুধবার নয় একদিন পিছিয়ে বৃহস্পতিবার আসবে ভারতের উপহার ২০ লাখ ডোজ টিকা।

অধিদফতরে এক জরুরি বৈঠক শেষে মন্ত্রী আরও জানান, ভ্যাকসিনের সকল পরিকল্পনা চূড়ান্ত পর্যায়ে। প্রথম পর্যায়ে সিটি করপোরেশন, জেলা থেকে উপজেলা পর্যন্ত চলবে কার্যক্রম। সারাদেশে প্রতিদিন দেয়া হবে দুই লাখ করে ডোজ।

এ সময় স্বাস্থ্য অধিদফতরের মহাপরিচালক অধ্যাপক এবিএম খুরশীদ আলম বলেন, ভ্যাকসিন আসার পর তা রাখা হবে ইপিআইয়ের সংরক্ষণাগারে।

একদিন পিছিয়ে বৃহস্পতিবার করোনার টিকার প্রথম চালান আসছে বাংলাদেশে। নয়াদিল্লির উপহার হিসেবে দেয়া বিশ লাখ ডোজ ভারতের এয়ার ইন্ডিয়ার বিশেষ বিমান যোগে নামবে হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমান বন্দরে। এরইমধ্যে টিকা বহনকারী এয়ার ইন্ডিয়ার বিশেষ ফ্লাইটটি বিমান বন্দরে গ্রাউন্ড হ্যান্ডেলিং চার্জসহ সকল প্রকার চার্জ মওকুফের জন্য বিমান মন্ত্রণালয়কে চিঠি দিয়েছে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়।

অধিদফতরের মহাপরিচালক জানান, ভ্যাকসিন সংরক্ষণে ঢাকার ইপিআই সদর দফতরের স্টোরসহ তিনটি স্টোর প্রস্তুত করা হয়েছে।

সব ঠিকঠাক থাকলে চলতি মাসেই সেরাম ইনস্টিটিউটে তৈরি অক্সফোর্ড-অ্যাস্ট্রেজেনকার ভ্যাকসিন দিয়েই শুরু হতে পারে দেশে করোনা সংক্রমণ প্রতিরোধ ও মহামারি নিয়ন্ত্রণে ভ্যাকসিনেশন কার্যক্রম। সেক্ষেত্রে বিশেষ কোনো ব্যক্তি নয় বরং ফ্রন্টলাইনারদের প্রয়োগের মাধ্যমেই শুরু হবে ভ্যাকসিনেশনের কার্যক্রম।

আগামী সপ্তাহে সেরাম থেকে কেনা তিন কোটি ভ্যাকসিনের প্রথম চালান ৫০ লাখ ডোজ ঢাকায় আসার কথা রয়েছে।

Previous articleআপত্তিকর অবস্থায় নারীসহ পুলিশ কর্মকর্তাকে ধরল গ্রামবাসী
Next articleম্যাচের আগে নতুন অধিনায়ককে মাশরাফীর দোয়া
আজকের বাংলাদেশ ডিজিটাল নিউজ পেপার এখন দেশ-বিদেশের সর্বশেষ খবর নিয়ে প্রতিদিন অনলাইনে । ব্রেকিং নিউজ, জাতীয়, আন্তর্জাতিক রিপোর্টিং, রাজনীতি, বিনোদন, খেলাধুলা আরও অন্যান্য সংবাদ বিভাগ । আমাদের হাত বাধা নেই, আমাদের চোখ খোলা আমরা বলতে পারি ।