বাংলাদেশ ডেস্ক: স্বামীর বিরুদ্ধে জোর করে দেহ ব্যবসায় নামানোর অভিযোগ তুলেছেন রিয়াজ ভাট্টি নামে এক ব্যক্তির স্ত্রী রেহনুমা ভাট্টি। শুধু তাই নয়, তার অভিযুক্তের তালিকায় রয়েছেন বেশ কয়েকজন রাজনীতিক এবং ক্রীড়াবিদও।

গত ২৪ সেপ্টেম্বর মুম্বাই পুলিশ কমিশনারের কাছে এই মর্মে একটি অভিযোগ করেছেন রেহনুমা। সম্প্রতি ‘দ্য প্রিন্ট’-এর হাতে সেই অভিযোগপত্র এসেছে। অভিযোগপত্রে কোনো ঠিকানা, নির্দিষ্ট তারিখ এবং কোথায় তার সাথে এমন ঘটনা ঘটেছে সে কথা উল্লেখ নেই।

রেহনুমার অভিযোগ, পুলিশে এফআইআর দায়ের করার জন্য বার বার চেষ্টা করেছিলেন তিনি। কিন্তু তারা সহযোগিতা করছিল না। সেপ্টেম্বরে তার অভিযোগপত্র জমা নেয়া হয়। কিন্তু নভেম্বর মাস পড়ে গেলেও এখনো কোনো ব্যবস্থা নেয়া হয়নি। তার দাবি, পুলিশের শীর্ষ স্তরের কর্মকর্তাদের সাথে একাধিক বার দেখা করেছেন। কিন্তু তার কাছে টাকা চাওয়া হয়েছে। রেহনুমার কথায়, ‘কেন আমি টাকা দিতে যাব? আমি কোনো অন্যায় করিনি। পুলিশও অন্যতম অপরাধী।’

রেহনুমা অভিযোগপত্রে জানিয়েছেন, ২০১১-১২ সালে এক ব্যক্তির সাথে জোর করে শারীরিক সম্পর্ক স্থাপনে বাধ্য করেছিলেন তার স্বামী। ২০১৪-১৫ সালে এক ক্রিকেটার এবং আরো কয়েকজন ক্রীড়াবিদও তাকে ধর্ষণ করেন। শুধু তাই নয়, তাকে ধর্ষণ করেছেন এক সাবেক কেন্দ্রীয় মন্ত্রীও।

রেহনুমার দাবি, ওই মন্ত্রীর সামনে তাকে নগ্ন হয়ে নাচতে বাধ্য করা হয়েছিল। তিনি আপত্তি করায় বেধড়ক মারধর করা হয়।

ডেপুটি পুলিশ কমিশনার মঞ্জুনাথ সিঙ্ঘে স্বীকার করেছেন, এ রকম একটি অভিযোগ জমা পড়েছে। তবে সেই অভিযোগ সম্পর্কে তিনি বিশেষ কিছু জানেন না। যেখানে অভিযোগপত্র জমা পড়েছে সেই সান্তাক্রুজ থানার এক কর্মকর্তা জানিয়েছেন, তদন্ত চলছে। এ বিষয়ে সবিস্তার তথ্য প্রকাশ করা যাবে না।

সূত্র : আনন্দবাজার পত্রিকা

Previous articleঅপহরণের ১০দিন পর যুবতী উদ্বার
Next articleশ্রীবরদীতে বন্যপ্রাণী হত্যাকান্ডে জড়িতদের শাস্তির দাবিতে প্রতিবাদ সমাবেশ
আজকের বাংলাদেশ ডিজিটাল নিউজ পেপার এখন দেশ-বিদেশের সর্বশেষ খবর নিয়ে প্রতিদিন অনলাইনে । ব্রেকিং নিউজ, জাতীয়, আন্তর্জাতিক রিপোর্টিং, রাজনীতি, বিনোদন, খেলাধুলা আরও অন্যান্য সংবাদ বিভাগ । আমাদের হাত বাধা নেই, আমাদের চোখ খোলা আমরা বলতে পারি ।