বাংলাদেশ ডেস্ক: মেয়েকে ধর্ষণ করা হয়েছে, এই অভিযোগ জানিয়ে পুলিশের দ্বারস্থ হয়েছিলেন এক নারী। মেয়ের ঘটনার তদন্তকারী পুলিশের হাতেই ধর্ষিত হতে হলো নারীকে। এমনই অভিযোগ উঠেছে ভারতের উত্তরপ্রদেশের কনৌজ জেলায়।

এ ঘটনায় অনুপ মৌর্য নামে অভিযুক্ত ইনস্পেক্টরকে সাসপেন্ড করা হয়েছে। তিনি বর্তমানে জেল হেফাজতে রয়েছেন।

সংবাদ সংস্থা সূত্রে খবর, ১৭ বছরের এক কিশোরীকে ধর্ষণ করা হয় বলে অভিযোগ নিয়ে থানায় আসেন ভিকটিমের মা। যে ইনস্পেক্টর এই ঘটনা তদন্ত করছিলেন তিনিই তাকে ধর্ষণ করেছেন বলে পুনরায় অভিযোগ করেছেন ওই নারী। ইতোমধ্যেই অনুপ মৌর্য নামে অভিযুক্ত ইনস্পেক্টরকে সাসপেন্ড করা হয়েছে। তাকে গ্রেফতারও করা হয়েছে।

ভিকটিম নারীর অভিযোগ, গত ২৮ আগস্ট ওই পুলিশ কর্মকর্তা তার বাসার কাছে একটি পেট্রল পাম্পের সামনে দেখা করতে বলেন। সেখান থেকে তাকে নিজের বাসায় নিয়ে যান ওই পুলিশ। সেখানেই নারীকে ধর্ষণ করা হয় বলে অভিযোগ করছেন। এই ঘটনায় এফআইআর দায়ের করা হয়।

যদিও পুলিশ ইনস্পেক্টরের দাবি, তিনি কিছু কাগজে সই করানোর জন্য ওই নারীকে বাসায় নিয়ে গিয়েছিলেন। কনৌজের পুলিশ সুপার কানওয়ার অনুপম সিংহ বলেছেন, ‘প্রাথমিকভাবে এই অভিযোগ সঠিক বলে মনে করা হচ্ছে। ইনস্পেক্টরকে সাসপেন্ড ও গ্রেফতার করা হয়েছে। তিনি জেল হেফাজতে রয়েছেন।
সূত্র : ইউএনবি

Previous articleনোয়াখালীতে বিএনপির ২১ নেতাকর্মী গ্রেফতার
Next articleবিএনপি বিশৃঙ্খলা করলে আ’লীগ প্রতিহত করবে: তথ্যমন্ত্রী
আজকের বাংলাদেশ ডিজিটাল নিউজ পেপার এখন দেশ-বিদেশের সর্বশেষ খবর নিয়ে প্রতিদিন অনলাইনে । ব্রেকিং নিউজ, জাতীয়, আন্তর্জাতিক রিপোর্টিং, রাজনীতি, বিনোদন, খেলাধুলা আরও অন্যান্য সংবাদ বিভাগ । আমাদের হাত বাধা নেই, আমাদের চোখ খোলা আমরা বলতে পারি ।