মেয়েকে ধর্ষণ ও বাবাকে মারধর : প্রধান আসামি ৭ দিনের রিমান্ডে

বাংলাদেশ প্রতিবেদক: সুনামগঞ্জের জগন্নাথপুরে পাইলগাঁও ইউনিয়নের আলীগঞ্জ বাজারের স্বামী পরিত্যক্তা এক নারীকে অপহরণ, ধর্ষণ ও তার বাবা আনোয়ার মিয়াকে (৬৫) বেদম মারধরের মামলায় গ্রেপ্তারকৃত ছয় আসামিকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য পৃথক পৃথকভাবে রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন আদালত।

আজ রোববার দুপুরে জগন্নাথপুর জোনের বিচারক জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট শুভদীপ পালের আদালতে এই রিমান্ড শুনানি অনুষ্ঠিত হয়।

আদালতে মামলার প্রধান আসামি শামীম আহমদকে ১০ দিনের এবং লিটন মিয়া, আক্কাই মিয়া, দিলাক মিয়া, কাজল মিয়া ও আলম হোসেনকে পাঁচ দিনের রিমান্ড চায় পুলিশ। শুনানি শেষে আদালত শামীম আহমদের সাত দিনের এবং অন্য পাঁচ আসামির একদিন করে রিমান্ড মঞ্জুর করেন।

বিষয়টি নিশ্চিত করে সুনামগঞ্জ কোর্ট পুলিশের ইন্সপেক্টর সেলিম নেওয়াজ জানান, জগন্নাথপুরের চাঞ্চল্যকর মামলার ঘটনায় মামলার প্রধান আসামি শামীম আহমদকে সাত দিনের ও অন্য পাঁচ আসামির একদিন করে রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন আদালত।

প্রসঙ্গত, গত সোমবার (৫ অক্টোবর) রাত ১টায় গোতগাঁও গ্রামের ইয়াবা ব্যবসায়ী শামীম আহমদসহ কয়েক বখাটে আলীগঞ্জ বাজারের কলোনিতে গিয়ে আনোয়ার মিয়ার মেয়ের খোঁজ করেন। ওই সময় তারা তাকে বাড়ি থেকে ধরে নিয়ে লোহার রড দিয়ে পেটায়। আনোয়ার মিয়ার অভিযোগ, তার মেয়েকে জোরপূর্বক ধর্ষণ করেছে শামীম আহমদ।

ওই ঘটনার পরিদন মঙ্গলবার (৬ অক্টোবর) জগন্নাথপুর থানায় মামলা পাঁচজনকে আসামি করেন আনোয়ার মিয়ার নির্যাতিতা মেয়ে। এরপরই এজাহারভুক্ত পাঁচ আসামিসহ মোট ছয়জনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।