বাংলাদেশ প্রতিবেদক: পিকে হালদারের সহযোগী ওকায়ামা লিমিটেডের পরিচালক শুভ্রা রানী ঘোষকে গ্রেফতার করেছে দুদক। সোমবার (২২ মার্চ) বিমানবন্দর থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়।

দুদক সচিব জানান, বিভিন্ন জিজ্ঞাসাবাদে ও তদন্তে মডগেজ ছাড়াই ঋণ নিয়ে তা স্থানান্তরে শুভ্রা রানীর সংশ্লিষ্টতা রয়েছে বলে প্রমাণ রয়েছে।

জানা যায়, ব্যবসা সম্প্রসারণের কথা উল্লেখ করে বাংলাদেশ ব্যংকের দুটি চেকের মাধ্যমে ৩১ কোটি টাকা ঋণ নেয় ওকায়ামা লি.। ব্যবসা সম্প্রসারণে সে অর্থ ব্যবহার না করে ২০১৫ সালে ২২ কোটি টাকা রিলায়েন্স ফাইন্যান্সের হিসাবে স্থানান্তর করা হয়। অন্য একটি অংশ দিয়ে ঋণ সমন্বয় করা হয় পিকের নিয়ন্ত্রণাধীন প্রতিষ্ঠান মেসার্স বর্ণ লিমিটেডের। তবে দুদকের তদন্তে দেখা যায় ৩১ কোটি টাকা নয়, প্রতিষ্ঠানটির মাধ্যমে ঋণ নেয়া সুবিধাভোগীরা নামে বেনামে ৮৭. ৬০ কোটি টাকা আত্মসাৎ করেন।

এমন অভিযোগে গত রোববার (২১ মার্চ) ওকায়ামার পরিচালক সুব্রত দাসসহ ৩৭ জনের বিরুদ্ধে মামলার পর সোমবার দুপুরে বিমানবন্দরে আটক করা হয় প্রতিষ্ঠানটির পরিচালক শুভ্রা রানী ঘোষকে।

দুদক সচিব জানান, নিজের কোম্পানির নামে ঋণ গ্রহণে কোনো নিয়ম মানেননি ওকায়ামার পরিচালকরা। এ সময়, পিকে হালদারের গ্রেফতারের বিষয়ে একটি ইন্টারন্যশনাল এজেন্সিকে দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে বলেও জানান দুদক সচিব।

এদিকে, সোমবার বিকেলে পিকে হালদারের অর্থ লোপাটের ঘটনায় সংশ্লিষ্ট ২৮ টি কাগু‌জে প্র‌তিষ্ঠা‌নের ঋণ দেয়া সংক্রান্ত সকল নথিপত্র চে‌য়ে ফাস ফাইন্যান্স লি‌মি‌টে‌ডকে চিঠি দিয়েছে দুদ‌ক।

Previous articleমামলা তুলতে রাজি না হওয়ায় গৃহবধূকে প্রকাশ্যে শারীরিক নির্যাতন, ভিডিও ভাইরাল
Next articleবনানীতে ১৪ তলা ভবনে আগুন
আজকের বাংলাদেশ ডিজিটাল নিউজ পেপার এখন দেশ-বিদেশের সর্বশেষ খবর নিয়ে প্রতিদিন অনলাইনে । ব্রেকিং নিউজ, জাতীয়, আন্তর্জাতিক রিপোর্টিং, রাজনীতি, বিনোদন, খেলাধুলা আরও অন্যান্য সংবাদ বিভাগ । আমাদের হাত বাধা নেই, আমাদের চোখ খোলা আমরা বলতে পারি ।