বিবস্ত্র করে নারী নির্যাতন: দেলোয়ার কারাগারে, সুমনের ৪ দিনের রিমান্ড

বাংলাদেশ প্রতিবেদক: গৃহবধূকে বিবস্ত্র করে নির্যাতন মামলায় প্রধান আসামি দেলোয়ার হোসেন দেলুকে ঢাকার নারায়ণগঞ্জ থেকে নোয়াখালীর পিবিআইতে হস্তান্তরের পর পাঁচ মামলায় তাকে গ্রেফতার দেখিয়ে কারাগারে পাঠানো হয়েছে।
মঙ্গলবার সকালে দেলোয়ারকে চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে ৩নং আমলি আদালতে হাজির করা হয়। দুপুরে শুনানি শেষে জ্যেষ্ঠ বিচারিক হাকিম মাসফিকুল হক তাকে গ্রেফতার দেখিয়ে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেন।

অন্যদিকে হবিগঞ্জ থেকে গ্রেফতারকৃত নির্যাতন মামলার ৬ নম্বর আসামি শামসুদ্দিন সুমনকে আদালতে ওঠার পর চার দিনের রিমান্ড দেয়া হয়েছে। আসামি মোয়াজ্জেম হোসেন সোহাগ মেম্বারের জামিনের আবেদন করলে তা নামঞ্জুর করেন আদালত।

এ ছাড়া মঙ্গলবার বিকালে আসামি আবুল কালামকে রিমান্ড শেষে ১৬৪ ধারায় স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দির জন্য আদালতে ওঠানো হবে বলে পিবিআই সূত্রে জানা গেছে।

পিবিআই নোয়াখালী ইন্সপেক্টর মামুনুর রশিদ পাটোয়ারী বলেন, সকালে ধর্ষণ মামলার প্রধান আসামি দেলোয়ার, নির্যাতন, পর্নোগ্রাফি মামলার ৬ নম্বর আসামি শামসুদ্দিন সুমন ও গ্রেফতার মোয়াজ্জেম হোসেন সোহাগ মেম্বারকে চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে ৩নং আমলি আদালতে হাজির করা হয়।

আদালতের জ্যেষ্ঠ বিচারিক হাকিম মাসফিকুল হক দেলোয়ারকে পাঁচ মামলায় শুনানি শেষে গ্রেফতার, নির্যাতন মামলায় শামসুদ্দিন সুমনের চার দিনের রিমান্ড মঞ্জুর ও সোহাগ মেম্বারের জামিন নামঞ্জুর করে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ প্রদান করেন।

অতিরিক্ত পাবলিক প্রসিকিউটর আলতাফ হোসেন জানান, গ্রেফতার সোহাগ মেম্বারের পক্ষে আদালতে কোনো আইনজীবী না থাকায় তিনি নিজেই নিজের জামিনের জন্য আবেদন করেন। এ সময় তার জামিনের বিরোধিতা করেন জেলা আইনজীবী সমিতির সভাপতি মোল্লা হাবিবুর রসুল মামুন।