বাংলাদেশ প্রতিবেদক: বন্ধ থাকবে সব সরকারি-বেসরকারি অফিস। চলবে না গণপরিবহন। ১৩ দফা নিষেধাজ্ঞা দিয়ে আগামী ২১ এপ্রিল পর্যন্ত লকডাউনের প্রজ্ঞাপন জারি করা হয়েছে। ১৪ এপ্রিল সকাল ৬টা থেকে কার্যকর হবে সর্বাত্মক এই লকডাউন। তবে খোলা থাকবে শিল্পকারখানা। সীমিত পরিসরে খোলা থাকবে কাঁচাবাজার ও রেস্টুরেন্ট।

৪ এপ্রিল থেকে চলছে সরকারের ১১ দফার নিষেধাজ্ঞা, তবে পরে সেটা শিথিল করে চালু করা হয় গণপরিবহন, খুলে দেয়া হয় শপিংমল, দোকানপাট। নিষেধাজ্ঞা থাকে শুধু দূরপাল্লার বাসে।

তবে, এবার সরকারের ঘোষিত নতুন লকডাউনের প্রজ্ঞাপনে এল বেশকিছু ক্ষেত্রে কঠোরতা। আগে সীমিত পরিসরে সরকারি বেসরকারি অফিস খোলা থাকলেও এবার বন্ধ থাকবে সব। তবে কর্মস্থল ত্যাগ করতে পারবেন না কেউ। বন্ধ থাকবে সড়ক, নৌ, আকাশপথ।

পণ্যপরিবহন ও উৎপাদন ব্যবস্থাপনার সঙ্গে জড়িত জরুরি সেবা থাকবে খোলা। শিল্পকারখানা থাকবে খোলা। তবে মানতে হবে স্বাস্থ্যবিধি, থাকতে হবে নিজস্ব পরিবহন ব্যবস্থাপনা। শুধু টিকা দিতে যাওয়া ছাড়া জরুরি প্রয়োজন ছাড়া বের হওয়া যাবে না ঘর থেকে।

রোজায় ইফতার ও সেহেরির কথা বিবেচনায় রেখে সোমবার দুপুর ১২টা থেকে সন্ধ্যা ৭টা এবং রাত ১২টা থেকে ভোর ৬টা পর্যন্ত কেবল খাবার সরবরাহ করতে পারবে হোটেল রেস্টুরেন্টগুলো। বর্তমানে খোলা থাকলেও পুরো বন্ধ থাকবে দোকানপাট, শপিংমল। খোলা জায়গায় কাঁচাবাজার বিক্রি করা যাবে সকাল ৯টা থেকে বিকেল ৩টা পর্যন্ত। আদালতগুলোর বিষয়ে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত জানাবেন সুপ্রিম কোর্ট। আর জুমা ও তারাবির নামাজের ব্যাপারে ধর্ম মন্ত্রণালয়কে সিদ্ধান্ত জানাতে বলা হয়েছে এ প্রজ্ঞাপনে।

Previous articleগাজীপুরে ভিডিও দেখিয়ে বিধবা নারীকে ‘একাধিকবার ধর্ষণ’, অর্থ আদায়
Next articleবিশ্বশান্তি সুসংহত করতে বাংলাদেশ প্রতিশ্রুতিবদ্ধ: প্রধানমন্ত্রী
আজকের বাংলাদেশ ডিজিটাল নিউজ পেপার এখন দেশ-বিদেশের সর্বশেষ খবর নিয়ে প্রতিদিন অনলাইনে । ব্রেকিং নিউজ, জাতীয়, আন্তর্জাতিক রিপোর্টিং, রাজনীতি, বিনোদন, খেলাধুলা আরও অন্যান্য সংবাদ বিভাগ । আমাদের হাত বাধা নেই, আমাদের চোখ খোলা আমরা বলতে পারি ।