বাংলাদেশ প্রতিবেদক: বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার বিদেশে চিকিৎসা নিয়ে সরকারের সিদ্ধান্ত পুনর্বিবেচনার দাবি জানিয়েছেন বিএনপি নেতা ও আইনজীবীরা। তবে দুদক আইনজীবী বলছেন, আইনের বাইরে সাজাপ্রাপ্ত আসামিকে বিদেশে যেতে দেওয়ার সুযোগ নেই। এদিকে খালেদা জিয়ার শারীরিক অবস্থার দিন দিন উন্নতি হচ্ছে বলে জানিয়েছে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ।

বিএনপি চেয়াপারসন বেগম খালেদা জিয়াকে বিদেশে নিয়ে চিকিৎসার আবেদন রোববার (৯ মে) খারিজ করে দেয় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়। সাজাপ্রাপ্ত আসামিকে বিদেশে যেতে দেওয়ার সুযোগ আইনে ও নজিরও নেই এমন পর্যবেক্ষণ দিয়ে আবেদনটি খারিজ করা হয়। সরকারের এ সিদ্ধান্তে ক্ষুব্ধ বিএনপি।

একটি গণমাধ্যমের খবর বলছে, খারিজ হলেও এখনো বিএনপি নেত্রীর পরিবারের আবেদন ইতিবাচকভাবেই দেখছে সরকারের উচ্চ পর্যায়।

বিএনপি নেতারা বলছেন, আইনি নয় রাজনৈতিক কারণেই এ সিদ্ধান্ত নিয়েছে সরকার। তাই সিদ্ধান্ত পুর্নবিবেচনার দাবি জানিয়েছেন তারা।

খালেদা জিয়ার আইনজীবী অ্যাডভোকেট খন্দকার মাহবুব হোসেন বলেন, তার প্রতি অমানবিক আচরণ করা হয়েছে। এর দায়-দায়িত্ব সরকারকে নিতে হবে। সরকার তার সিদ্ধান্ত থেকে সরে আসবে এবং খালেদা জিয়াকে বিদেশে যেতে দিবে।

বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান মেজর (অব.) হাফিজ উদ্দিন বলেন, এখনো সময় আছে। তারপরও অনুরোধ জানাচ্ছি- যেহেতু তার (খালেদা জিয়া) শারিরীক অবস্থা অবনতি হচ্ছে, সেহেতু তাকে বিদেশে চিকিৎসার দেওয়ার সুযোগ দেওয়া হউক।

তবে দুর্নীতি দমন কমিশনের আইনজীবী অ্যাডভোকেট খুরশিদ আলম খান বলেন, সাজাপ্রাপ্ত ব্যক্তিকে আইনে বাইরে গিয়ে বিদেশে চিকিৎসার কোনো সুযোগ নেই।

এদিকে বেগম খালেদা জিয়ার শারীরিক অবস্থার দিন দিন উন্নতি হচ্ছে বলে এভারকেয়ার হাসপাতালের দায়িত্বশীল একজন চিকিৎসক বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

ওই চিকিৎসক জানান, বেগম জিয়া স্বাভাবিক শ্বাসপ্রশ্বাস নিচ্ছেন তিনি। মাঝে মাঝে প্রয়োজনে তাকে অক্সিজেন দেওয়া হচ্ছে। ডায়াবেটিকও নিয়ন্ত্রণে রয়েছে।

Previous articleঈদের আগে বাড়ল স্বর্ণের দাম
Next articleমমতার নতুন মন্ত্রিসভার শপথ গ্রহণ
আজকের বাংলাদেশ ডিজিটাল নিউজ পেপার এখন দেশ-বিদেশের সর্বশেষ খবর নিয়ে প্রতিদিন অনলাইনে । ব্রেকিং নিউজ, জাতীয়, আন্তর্জাতিক রিপোর্টিং, রাজনীতি, বিনোদন, খেলাধুলা আরও অন্যান্য সংবাদ বিভাগ । আমাদের হাত বাধা নেই, আমাদের চোখ খোলা আমরা বলতে পারি ।