বাংলাদেশ প্রতিবেদক: ‘২০১৪ সালের ৫ জানুয়ারি খোদা আমাকে এমপি বানিয়েছে, আপনারা না।’ ময়মনসিংহ-৯ (নান্দাইল) আসনের সংসদ সদস্য আনোয়ারুল আবেদিন খান তুহিনের এমন একটি বক্তব্যে তোলপাড় সৃষ্টি হয়েছে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে। এ নিয়ে তার নির্বাচনী এলাকায়ও চলছে নানা আলোচনা-সমালোচনা।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, গত শনিবার (৩ সেপ্টেম্বর) বিকেলে নান্দাইল উপজেলা মোয়াজ্জেমপুর ইউনিয়নের কালিয়াপাড়া বাজারে ওয়ার্ড যুবলীগের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়। ওই সম্মেলনে প্রধান অতিথির বক্তব্য দেয়ার সময় এমন কথা বলেন এমপি তুহিন।

সম্মেলনে তার বক্তব্য ছিল এমন- ‘২০১৪ সালের ৫ জানুয়ারি খোদা আমাকে এমপি বানিয়েছে, আপনারা না। আমাকে আপনারা ভোট দেন নাই। আমি আপনাদের কাছে ভোট চাইতে আসি নাই। দ্বিতীয়বার (১৮ সালে) গেছুইন আর আইছুইন, কোনে কষ্ট অইছেনা, খালি গেছুইন আর আইছুইন, যতবার পারছুইন দিছুইন। এগুলোরে ভোট মনে করি না আমি।’

ফেসবুক লাইভে প্রচার হওয়া ২৪ মিনিটের সেই বক্তব্যের ভিডিও ছড়িয়ে পড়েছে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে। যা নিয়ে চলছে নানা আলোচনা-সমালোচনা। তবে খান মো: মামুন নামে একটি ফেসবুক আইডি থেকে বক্তব্যটি লাইভ প্রচারিত হলেও এমপি তুহিন এটিকে ‘সুপার এডিট’ আখ্যায়িত করেছেন।

ভাইরাল হওয়া ভিডিওতে এমপি তুহিনকে আরো বলতে শোনা যায়, ‘জবাব চাই, আপনাদের কাছে। জবাব মুখে দিতে হবে, পারবেন না দিতে? ভালো না লাগলে সোজা চলে যাবেন, উল্টো দিকে। আমার কোনো আপত্তি নাই। কিন্তু আমি যা কথা বলব, প্রশ্ন করব, জবাব আপনাদের দিতে হবে। ২০১৪ সালের ৫ জানুয়ারি খোদা আমাকে এমপি বানিয়েছে, আপনারা না। কথা সত্য না মিথ্যা। পিছনের মানুষ কি বোবা? আমি প্রত্যেকটা মানুষের জবাব চাই।’

তিনি আরো বলেন, ‘২০১৪ সালের ৫ জানুয়ারি খোদা যখন আমাকে এমপি বানালো, তখন আমার সাথে যিনি (সাবেক মেজর জেনারেল আব্দুস সালাম) ছিলেন। তিনি আমার সমপর্যায়ের মতো মানুষ ছিলেন না। তিনি অনেক বড় মানুষ ছিলেন। উনি দেখতে সুন্দর, আমার চেয়ে লম্বা দুই, তিন, পাঁচ, ছয় ইঞ্চি লম্বা ছিলেন। এদেশের মানুষ কি তখন ভেবে ছিল জেনারেল সাহেবের (সাবেক মেজর জেনারেল আব্দুস সালাম) হঠাৎ করে বিদায় হবে। আর তুহিনের হঠাৎ করে নান্দাইলে আগমন হবে। আপনারা চান নাই। এমনও মানুষ আছে আমাকে আপনারা চিনতেন না। এমনও মানুষ আছে, রাজনীতির বাইরের মানুষ আমাকে জীবনে দেখেন নাই, কথা ঠিক না বেঠিক?’

এমপি তুহিন বলেন, ‘নান্দাইলের মানুষ অতিষ্ঠ হয়ে গিয়েছিল, নান্দাইলের মানুষ যন্ত্রণায় কাতরাচ্ছিল। নান্দাইলের আলেমসমাজ পাঁচ ওয়াক্ত নামাজ পড়তে পারত না। ভোর রাতে ফজরের আজানের সময় মসজিদে আজান দিতে পারত না নর্তকির নাচের আওয়াজে। তখন মানুষ কষ্ট পেত। ঠিক তেমনি এক মুহূর্তে খোদা তাকে (সাবেক মেজর জেনারেল আব্দুস সালাম) জব্দ করলেন, আমার মতো তুচ্ছ মানুষকে এমপি বানালেন। আমাকে আপনারা ভোট দেন নাই। আমি আপনাদের কাছে ভোট চাইতে আসি নাই।’

বক্তব্যের ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হওয়ার পর অনেক মিডিয়াতেও খবরটি ব্যাপকভাবে কভারেজ পায়। এ নিয়ে এখন পক্ষ-বিপক্ষ ব্যাপক আলোচনা-সমালোচনা চলছে। এমপি তুহিনের অনুসারীদের অভিযোগ হলো প্রতিপক্ষ সরকারের ইমেজকে ক্ষুন্ন করার জন্য এমপির বক্তব্য সুপার এডিট করে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ছড়িয়ে দেয়।

Previous articleনোয়াখালী আব্দুল মালেক উকিল মেডিকেল কলেজে তালা, কর্মচারীরা অবরুদ্ধ
Next articleউল্লাপাড়ায় সওজ এর জায়গায় পূর্বদেলুয়া হাট
আজকের বাংলাদেশ ডিজিটাল নিউজ পেপার এখন দেশ-বিদেশের সর্বশেষ খবর নিয়ে প্রতিদিন অনলাইনে । ব্রেকিং নিউজ, জাতীয়, আন্তর্জাতিক রিপোর্টিং, রাজনীতি, বিনোদন, খেলাধুলা আরও অন্যান্য সংবাদ বিভাগ । আমাদের হাত বাধা নেই, আমাদের চোখ খোলা আমরা বলতে পারি ।