বাংলাদেশ প্রতিবেদক: খালেদা জিয়া ও তারেক রহমানকে রাজনীতি থেকে দূরে রাখতে সরকার মামলাকে অস্ত্র হিসেবে ব্যবহার করছে বলে অভিযোগ করেছেন বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন। এ সময় তিনি তারেক রহমান ও জোবায়দা রহমানের বিরুদ্ধে দেয়া গ্রেফতারি পরোয়ানার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানান। বলেন, তাদের বিরুদ্ধে মামলার কোনো ভিত্তি নেই।

মঙ্গলবার বিকেলে রাজধানীর গুলশানে বিএনপি চেয়ারপারসনের রাজনৈতিক কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এসব কথা বলেন।

বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমান ও তার সহধর্মীনি জোবায়দা রহমানের বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারির প্রতিক্রিয়ায় এ সংবাদ সম্মেলন করে দলটি।

মির্জা ফখরুল বলেন, ‘জোবায়দা রহমান একজন পেশাজীবী। তিনি রাজনীতিতে আসবেন কি আসবেন না এটা বলার সময় আসেনি। সরকারের মূল ভয় ও আশঙ্কাটাই হচ্ছে জিয়া পরিবার ও বিএনপিকে নিয়ে। ১/১১ সরকারের সময় বলা হয়েছিল মাইনাস টু কিন্তু প্রকৃতপক্ষে ঘটেছে মাইনাস ওয়ান।’

মির্জা ফখরুল বলেন, ‘নির্বাচন ঘনিয়ে আসলেই সরকার মামলাকে অস্ত্র হিসেবে ব্যবহার করে। ২০১৮ সালের নির্বাচনের আগে বিএনপির ১৯ জন প্রার্থীর প্রার্থিতা বাতিল করেছিল। তাদের টার্গেট হচ্ছে বিএনপিকে নির্মূল করা। কিন্তু সরকার বিএনপিকে নির্মূল করতে চাইলে কি হবে, মানুষ তো বিএনপিকে চায়। তাই শত চেষ্টা করেও বিএনপিকে রোধ করা যাবে না, এটা জনগণের দল।’

এ সময় ‘বিএনপিকে নিয়ে জনগণ বিপদে আছে’ আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদেরের এমন বক্তব্যের জবাবে বিএনপি মহাসচিব বলেন, কাকে নিয়ে বিপদে আছে সেটা জনগণ বিবেচনা করবে।’

Previous articleশাহজাদপুরে মুক্তিযোদ্ধার নামে সড়কের নামফলক উন্মোচন
Next article৪০তম বিসিএসের গেজেট প্রকাশ
আজকের বাংলাদেশ ডিজিটাল নিউজ পেপার এখন দেশ-বিদেশের সর্বশেষ খবর নিয়ে প্রতিদিন অনলাইনে । ব্রেকিং নিউজ, জাতীয়, আন্তর্জাতিক রিপোর্টিং, রাজনীতি, বিনোদন, খেলাধুলা আরও অন্যান্য সংবাদ বিভাগ । আমাদের হাত বাধা নেই, আমাদের চোখ খোলা আমরা বলতে পারি ।