রবিবার, জুন ২৩, ২০২৪
Homeরাজনীতিদেশে ভয়াবহ অর্থনৈতিক সংকট চলছে : জিএম কাদের

দেশে ভয়াবহ অর্থনৈতিক সংকট চলছে : জিএম কাদের

জয়নাল আবেদীন: বিরোধী দলীয় নেতা ও জাপা চেয়ারম্যান গোলাম মোহাম্মদ কাদের এমপি বলেছেন, দেশে স্বাভাবিক ভাবে তিন মাসের আমদানী ব্যয় সমান রিজার্ভ ৭-৮ বিলিয়ন ডলার থাকার কথা থাকলেও এখন ৪-৫ বিলিয়ন ডলার আছে। এই অবস্থায় প্রতিদিনই কমে যাচ্ছে টাকার ভ্যালু। মুল্যস্ফীতির কারনে দ্রব্যমুল্যের দাম বাড়ছে। বর্তমানে দেশে ভয়াবহ অর্থনৈতিক সংকট চলছে। সামনের দিকে বড় রকমের বিপজ্জনক অবস্থার সৃষ্টি হতে পারে।

রোববার বেলা সাড়ে ১২ টায় রংপুর সফরে এসে সাকির্ট হাউজে সাংবাদিকদের তিনি এসব কথা বলেন।জিএম কাদের বলেন, বাংলাদেশ ব্যাংকে সাংবাদিকদের প্রবেশে সরকারের নিষেধাজ্ঞা ঠিক না। বাংলাদেশ ব্যাংক জনগণের সম্পদ। সেগুলো সরকার ঠিকঠাক ভাবে রক্ষণাবেক্ষণ করছে কিনা সেই বিষয়ে জনগণকে জানতে হবে। আর জনগণ সংবাদের মাধ্যমে জানতে পারে। আমাদের দেশে বিনিয়োগ আসছে না। আমরা যে পরিমান খরচ করছি তার থেকে অনেক কম প্রবেশ করছে। আমরা কি কষ্ট করছি, আগামীতে আরো কি হবে এগুলো সবাইকে জানাতে হবে। সরকার এগুলো গোপন করছে। গোপন করার অর্থ আপনারা জনগণের স্বার্থ বিরোধী কিছু করছেন। না জানানো টা অপরাধ।বিরোধী দলীয় নেতা বলেন, ডলারের দাম বেড়েই চলছে। টাকা দিয়ে ডলার পাওয়া যাচ্ছে না। এয়ারলাইন্স কোম্পানী গুলো টিকিট বিক্রি করে তাদের দেশে টাকা নিতে পারছে না ডলারের অভাবে। বিনিয়োগ করবে কেন। এই অবস্থার সৃষ্টি হলো কেন, ৪০-৪৫ বিলিয়ন ডলারের রিজার্ভ হঠাৎ জিরো হলো কেন। এই রিজার্ভ কই গেলো। ইমপোর্ট করতেই পারছে না সরকার। মিল ফ্যাক্টরিগুলো চলতে পারছে না। মানুষ বেকার হয়ে যাচ্ছে। অসহনীয় পরিবেশ থেকে মানুষ মুক্তি চায়। কিন্তু আমরা মুক্তি দেখতে পারছি না।

তিনি আরো বলেন, সম্প্রতি ডোনাল্ড লু সফরে এসে বললো আমেরিকান অনেক কোম্পানী এখানে বিনিয়োগ করছে কিন্তু তারা প্রফিট নিয়ে যেতে পারছে না দেশে। এসব কারণে এ দেশে কেউ আর বিনিয়োগ করতে চাইবে না। তাছাড়া এ সরকার প্রচুর লুটপাট করছে । বিদ্যুৎ আর গ্যাসে লুটপাট হয়েছে। বিদেশে প্রচুর টাকা পাচার হয়েছে। যার কারনে আজকের এই অবস্থা। ওবায়দুল কাদের প্রসঙ্গে জিএম কাদের বলেন, আওয়ামীলীগের ওবায়দুল কাদের অনেক কথাই বলছেন। আমি ওনাকে শ্রদ্ধা করি। আওয়ামীলীগ বলছে তারা অনেক শক্তিশালী হয়েছে। আসলে এই শক্তি কি দানবীয় শক্তি না শুভ শক্তি। দানবীয় শক্তি যদি হয় তা আমরা পছন্দ করি না। জনগণ পছন্দ করে না।

তিনি আরো বলেন, আওয়ামীলীগ রাজনৈতিক দল হিসেবে বৈশিষ্ট হারিয়েছে। দল হিসেবে তারা রাজনৈতিক এজেন্ডা হারিয়েছে। এখন তারা কিছু পেশাজীবি আর সরকারি কর্মকর্তা নিয়ে দল চালাচ্ছে। আগে আওয়ামীলীগ সাধারণ মানুষের কথা ভাবতো। মানুষ আওয়ামীলীগের ছায়া তলে বিশ্রাম নিতে পারতো। এখন আর পারে না। তারা কিছু হাস্যকর ও অপ্রয়োজনীয় কিছু করছে যার কারনে আওয়ামীলীগ এখন দেশের মানুষের থেকে বিচ্ছিন্ন হয়ে গেছে। জিএম কাদের বলেন দুর্নীতি আর অব্যবস্থাপনার একটা উদাহরণ হয়ে আছে সবকয়টি নির্বাচন। ভোটে জনগনের মতামতের প্রতিফলন হচ্ছে না। জনগন সেই কারণে আস্থা এবং উৎসাহ পাচ্ছেন না। ডাকাডাকি করেও তাদের ভোট সেন্টারে আনা যাচ্ছে না। এসময় উপস্থিত ছিলেন জাপা চেয়ারম্যানের উপদেষ্টা ও জেলা জাতীয় পার্টির আহবায়ক আলা উদ্দিন মিয়া, মহানগর জাতীয় পার্টির সাধারণ সম্পাদক এস এম ইয়াসীর, কেন্দ্রীয় সাংস্কৃতিক সম্পাদক আজমল হোসেন লেবু, কেন্দ্রীয় সদস্য লোকমান হোসেনসহ অন্যান্য নেতৃবৃন্দ।

আজকের বাংলাদেশhttps://www.ajkerbangladesh.com.bd/
আজকের বাংলাদেশ ডিজিটাল নিউজ পেপার এখন দেশ-বিদেশের সর্বশেষ খবর নিয়ে প্রতিদিন অনলাইনে । ব্রেকিং নিউজ, জাতীয়, আন্তর্জাতিক রিপোর্টিং, রাজনীতি, বিনোদন, খেলাধুলা আরও অন্যান্য সংবাদ বিভাগ । আমাদের হাত বাধা নেই, আমাদের চোখ খোলা আমরা বলতে পারি ।
RELATED ARTICLES
- Advertisment -

Most Popular

Recent Comments