বিশ্বকাপের ফাইনালে টস জিতে ফিল্ডিংয়ে বাংলাদেশ

বাংলাদেশ ডেস্ক: পচেফস্ট্রুমে আইসিসি অনূর্ধ্ব-১৯ যুবা বিশ্বকাপে টসভাগ্য সহায় হয়েছে টাইগারদের। টস জিতে আগে ফিল্ডিং করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে টাইগাররা।

বিশ্বকাপের স্বপ্নিল ফাইনাল। এবারেই প্রথম আইসিসির কোন ইভেন্টের ট্রফি জয়ের সুযোগ ইয়াং টাইগারদের সামনে। তাও আবার বিশ্বকাপ। বাংলার যুবাদের যেখানে প্রথম বিশ্বকাপ, সেখানে আসরের বর্তমান চ্যাম্পিয়ন ভারতের পঞ্চম শিরোপা জয়ের প্রত্যয়।

তামিম-মাহমুদুল- রাকিবুল কিংবা আকবর আলী বাংলাদেশের ক্রিকেট মানচিত্রে এখন তারা সু-পরিচিত। তারাই এখন লাল সবুজের স্বপ্ন সারথি। বিশ্ব সেরা অলরাউন্ডার সাকিব কিংবা বাংলাদেশ দলের ব্যাটিং স্তম্ভ মুশফিকরা যুবা দলের হয়ে যা করতে পারেনি এই দুরন্ত কিশোররা ফাইনালে উঠে তাই করে দেখিয়েছে। অনেক নতুন নতুন গল্পের জন্ম দিয়েছে ইয়াং টাইগাররা। ১৬ দলের লড়াই শেষে এবার শ্রেষ্ঠত্ব অর্জনে দুই দল বাংলাদেশ-ভারত।

রক্তের শেষ বিন্দু দিয়ে লড়াইয়ের প্রতিজ্ঞা বাংলার যুবাদের। ফাইনাল জিতলেই এক লালিত এক স্বপ্নের পূর্ণতা পাবে। সৃষ্টি হবে নয়া ইতিহাস। কারণ, ভারত এর আগে চার বার যুবাদের বিশ্বকাপ ট্রফি জিতলেও, বাংলাদেশ এই প্রথম আইসিসি’র কোন ট্রফি জয়ের লড়াইয়ে। কিন্তু, বাংলার যুবাদের আরাধ্য সেই ট্রফি জয়ের পথে অতীত শঙ্কা জাগিয়েছে। ২০১৮ থেকে এই পর্যন্ত একটি সেমি আর দুটি ফাইনালে এই ভারত দলের কাছে হেরেছে বাংলাদেশ। ব্যাপারটি মাথায় না রেখে বাড়তি চাপ নিতে চাইছে না বাংলাদেশ দল।

বাংলাদেশ-ভারতের এই প্রজন্মের মাঝে আছে আগামীর বিরাট কোহলি কিংবা সাকিবদের মতো বিশ্ব সেরা ক্রিকেটার। বাংলাদেশের ব্যাটিং স্তম্ভ তামিম-মাহমুদুল ভারতের জাইওয়াল-সাক্সসেনা। স্পিনে ত্রাস ছড়াবে রাকিবুল প্রতিপক্ষের রভি। পেস ব্যাটারিও দারুণ। বাংলার তানজিম সাকিব ওদের টিয়াগি দুর্দান্ত। দুই দলের লড়াই তিনভাবেই আছে সেরা অস্ত্র। তাই চোঠদের এই বিশ্বকাপের ম্যাচ হবে দারুণ উত্তাপের।

দুই দলের জন্য একটা বার্তা থাকছে। তা হলো। শেষ পাঁচ বিশ্বকাপের ফাইনালে মধ্যে দ্বিতীয় ইনিংসে ব্যাট করা দলই জিতেছে চারবার। তাই ম্যাচের আগ মুহূর্তে টস নামের ভাগ্য পরীক্ষাও রাখবে বড় ভূমিকা।