বাংলাদেশ ডেস্ক: দুর্দান্ত একটি ইনিংস খেললেন পাকিস্তানের তরুণ ক্রিকেটার আব্দুল্লাহ শফিক। শুধু খেললেন বলে ভুল হবে, পুরো দায়িত্ব নিজের কাঁধে নিয়ে দলকে জয়ের বন্দরে পৌঁছালেন ২২ বছরের এই যুবা। শ্রীলঙ্কার বিরুদ্ধে প্রথম টেস্টে ৪ উইকেটে জিতল পাকিস্তান। ৩৪২ রানের টার্গেট পাকিস্তান অতিক্রম করে তার বীরোচিত ইনিসে ভর করেই।

দ্বিতীয় ইনিংসে ৪০৮ বলে ১৬০ রানের অসাধারণ একটি ইনিংস খেলেন আব্দুল্লাহ শফিক। সাতটি বাউন্ডারি ও একটি ছক্কা দিয়ে ইনিংসটি সাজান তিনি। এর ফলে ২ টেস্ট সিরিজে পাকিস্তান ১-০-এ এগিয়ে গেল।

এই মাঠে এত রান চেজ করে জয়ের রেকর্ড ছিল না। ২০১৯ সালে নিউজিল্যান্ড চতুর্থ ইনিংসে ২৬৮ রান করে জিতেছিল। এবার পাকিস্তান সেটিকে ছাড়িয়ে গেল।

ম্যাচটির শেষ দিন বেশ জমে ওঠেছিল। শফিক ও বাবর আজম আগের দিনই পাকিস্তানের জয়ের সম্ভাবনা গড়ে দিয়েছিলেন। তবে আজ কয়েকবার কিছু ঝুঁকিতে পড়েছিল তারা। বিশেষ করে মধ্যাহ্ন বিরতির পর শেষ ৪৪ রান বাকি থাকতে বেশ অনিশ্চয়তার সৃষ্টি হয়েছিল। তারপর বৃষ্টিতে নতুন করে অনিশ্চয়তা সৃষ্টি করে। তখনো তাদের দরকার ১১ রান। তবে পাকিস্তান জয় নিয়েই মাঠ ছাড়তে সক্ষম হয়।

পাকিস্তানের এই লড়াকু মেজাজের পরিচয় পাওয়া গিয়েছিল প্রথম ইনিংসেই। তখন ১১২ রানে ৮ উইকেট পড়ে যাওয়ার পর বাবর আজম অসাধারণ একটি সেঞ্চুরি করে পাকিস্তানকে খেলায় ফিরিয়ে এনেছিলেন। শ্রীলঙ্কার স্কোরের কাছাকাছি নিয়ে গিয়েছিলেন পাকিস্তানের স্কোর।

তবে আবদুল্লাহ শফিকের দ্বিতীয় ইনিংসে সেঞ্চুরিটি ছিল আরো সুন্দর। ১৬০ রানের জাদুকরি ইনিংস খেলে তিনি অপরাজিতভাবেই সাজঘরে ফেরেন। শ্রীলঙ্কা তিনটি উইকেট দ্রুততার সাথে নিয়ে কাঁপন ধরিয়ে দিলেও তিনি কাঁপেননি। তিনি সেঞ্চুরি করেছিলেন আগের দিনেই। ১১২ রানে অপরাজিত ছিলেন। আজ বাকি কাজ সম্পন্ন করেন। ফলে ম্যান অব দি ম্যাচ তিনিই হন।

স্কোর
শ্রীলঙ্কা : ২২২ ও ৩৩৭
পাকিস্তান ২১৮ ও ৩৪৪/৬
ম্যান অব দি ম্যাচ : আবদুল্লাহ শফিক।

Previous articleজয়পুরহাটে পর্নোগ্রাফি ভিডিও ও সরবরাহের অভিযোগে গ্রেফতার ৭
Next articleনওগাঁর আত্রাইয়ে নিজ শয়ন কক্ষ থেকে স্বামী-স্ত্রীর ঝুলন্ত লাশ
আজকের বাংলাদেশ ডিজিটাল নিউজ পেপার এখন দেশ-বিদেশের সর্বশেষ খবর নিয়ে প্রতিদিন অনলাইনে । ব্রেকিং নিউজ, জাতীয়, আন্তর্জাতিক রিপোর্টিং, রাজনীতি, বিনোদন, খেলাধুলা আরও অন্যান্য সংবাদ বিভাগ । আমাদের হাত বাধা নেই, আমাদের চোখ খোলা আমরা বলতে পারি ।