বাংলাদেশ প্রতিবেদক: আবার করোনার থাবায় ঘায়েল জনজীবন। হু হু করে বাড়ছে শনাক্ত আর মৃতের সংখ্যা। কিন্তু সাধারণ মানুষের তাতে যেন কোনো ভ্রুক্ষেপই নেই। মাস্ক ব্যবহার নিশ্চিতে তাই আবার মাঠে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী।

রোববার (২১ মার্চ) সকাল থেকে রাজধানীর বিভিন্ন স্থানে মাস্ক বিতরণ করে ঢাকা মহানগর পুলিশ। নগরবাসী সচেতন না হলে আগামীতে কঠোর ব্যবস্থা নেয়ার হুঁশিয়ারি তাদের।

সব সূচকেই দেশে আবারো ঊর্ধ্বমুখী কোভিড ১৯ সংক্রমণ। পরিস্থিতি ক্রমেই হচ্ছে অবনতি, চাপ বাড়ছে হাসপাতালগুলোতেও। এই যখন অবস্থা তখনো জনসমাগম কিংবা গণপরিবহনে নেই স্বাস্থ্যবিধি মানার কোনো তোয়াক্কা। মাস্ক ব্যবহার না করার পেছনেই সবচে বেশি উদাসীনতা। কমতি নেই অজুহাতের।

মাস্ক না পরার বিষয়ে একজন সাধারণ মানুষ বলেন, মাস্ক সবসময় পরি কিন্তু এখন একজন লোক উঠায় দিতে আসছি তাই পরিনি। আরেকজন বলেন, আর মাস্ক পরে কি হবে, যার করোনা হওয়ার তার করোনা হবে। অন্য আরেকজন বলেন, মাস্ক পরতে ভালো লাগে না।

পরিস্থিতি যখন ভয়াবহ হচ্ছে, তখন জনগণকে মাস্ক পরতে ও স্বাস্থ্যবিধি মানাতে আবারো মাঠে নেমেছে আইনশৃঙ্খলা রক্ষা বাহিনী। ‘মাস্ক পরার অভ্যাস, কোভিডমুক্ত বাংলাদেশ’ স্লোগানে রোববার সকালে রাজধানীর বিভিন্ন পয়েন্টে ঢাকা মহানগর পুলিশের পক্ষ থেকে বিতরণ করা হয় বিনামূল্যে মাস্ক। স্বাস্থ্যবিধি না মানলে সাধারণ আইনের প্রয়োগের হুঁশিয়ারিও দেন সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা।

ঢাকার তেজগাঁও বিভাগের ডিসি হারুন-আর-রশিদ বলেন, ‘বিভিন্ন জায়গায় মোড়ে মোড়ে আমরা মাস্ক পরানোর জন্য বলছি। আর এটাও বলছি কারও যদি মাস্ক না থাকে প্রত্যেক থানা খোলা আছে সেখানে যাবেন মাস্ক দিয়ে দেবে।’

মাস্ক বিরতণের এ কর্মসূচিকে ইতিবাচক বলছেন সাধারণ মানুষ।

বেশির ভাগ এলাকায় এক ঘণ্টারও কম সময়ের মধ্যেই শেষ হয়ে যায় পুলিশের জনসচেতনতামূলক কর্মসূচি।

Previous articleবিয়ের পর নিখোঁজ নায়িকা পপি!
Next articleকরোনা সংক্রমণের ভয়াবহতার মাত্রা ছাড়িয়েছে ভারতে
আজকের বাংলাদেশ ডিজিটাল নিউজ পেপার এখন দেশ-বিদেশের সর্বশেষ খবর নিয়ে প্রতিদিন অনলাইনে । ব্রেকিং নিউজ, জাতীয়, আন্তর্জাতিক রিপোর্টিং, রাজনীতি, বিনোদন, খেলাধুলা আরও অন্যান্য সংবাদ বিভাগ । আমাদের হাত বাধা নেই, আমাদের চোখ খোলা আমরা বলতে পারি ।