মো: রবিউল ইসলাম: নুসরাত হত্যার ঘটনায় ন্যায়বিচার চাই, চাই দায়ীদের বিরুদ্ধে আইনের কঠোর প্রয়োগ- এই শ্লোগানে সচেতন নাগরিক কমিটি (সনাক) লক্ষ্মীপুর জেলা শাখার উদ্যোগে আজ মঙ্গলবার সকালে লক্ষ্মীপুর প্রেসক্লাবের সম্মুখে মানববন্ধন কর্মসূচির আয়োজন করে।

ফেনীর মাদ্রাসাছাত্রী নুসরাত জাহানের হত্যাকা-ের প্রেক্ষিতে পুলিশের বিরুদ্ধে গাফিলতি ও যোগসাজশের যে অভিযোগ উঠেছে তার বিচার বিভাগীয় তদন্ত দাবি করেছে বক্তারা। সনাকের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, সারাদেশে নারীর প্রতি সহিংসতা – সংখ্যা ও নৃশংসতার মাত্রা বিবেচনায় এখন যে পর্যায়ে পৌঁছেছে তা অকল্পনীয়। এই পরিস্থিতি মোকাবেলা করতে হলে দায়ী ব্যক্তি ও তাদের সহযোগীদের বিরুদ্ধে আইনের কঠোরতম প্রয়োগ নিশ্চিত করার কোন বিকল্প নেই বলে মনে করে সনাক ও টিআইবি। কার্ত্তিক সেনগুপ্তের সঞ্চালনায় মানববন্ধনে বক্তব্য রাখেন, সনাক সভাপতি প্রফেসর মাহবুব মোহাম্মদ আলী, সহ-সভাপতি আবুল মোবারক ভূঁইয়া ও ভানু নাগ, সদস্য সাইফুল ইসলাম ভুঞা (তপন), গাজী গিয়াস উদ্দিন, প্রফেসর জেডএম ফারুকী প্রমুখ। মানববন্ধন কর্মসূচিতে সংহতি প্রকাশ করে- লক্ষ্মীপুর সরকারি মহিলা কলেজ ও লক্ষ্মীপুর বালিকা বিদ্যা নিকেতনের শিক্ষক ও শিক্ষার্থীবৃন্দ, সুশীল সমাজের প্রতিনিধি। বক্তাগণ বলেন, আমরা আশা করি তদন্ত সুষ্ঠুভাবে সম্পন্ন হবে এবং দোষী ব্যক্তিরা দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি পাবে। প্রতিটা অভিযোগের সুষ্ঠু তদন্ত হতে হবে এবং সংশ্লিষ্ট পুলিশ কর্মকর্তা তথা সার্বিকভাবে পুলিশ প্রশাসনকে জবাবদিহিতার আওতায় আনতে হবে। এজন্য আমরা বিচারবিভাগীয় তদন্ত দাবি করছি। কারণ পুলিশ বাহিনী যথাযথভাবে দায়িত্ব পালন না করলে দেশে বিচারহীনতার সংস্কৃতি প্রাতিষ্ঠানিক রূপ লাভ করবে। তারা বলেন, “দোষীরা কেউ ছাড়া পাবেনা”- প্রধানমন্ত্রীর এই আশ্বাসের যথাযথ বাস্তবায়ন দেখতে চায় দেশের মানুষ। এ লক্ষ্যে অনতিবিলম্বে বিচারবিভাগীয় তদন্তের উদ্যোগ নেওয়ার আহ্বান জানাচ্ছি।