‘গাছ কাটা’ মামলায় কলেজ অধ্যক্ষ মিজান কারাগারে

কামাল সিদ্দিকী: গাছ কাটার অভিযোগে দায়েরকৃত মামলায় পাবনার চাটমোহর সরকারি কলেজের অধ্যক্ষ মিজানুর রহমানের জামিন নামঞ্জুর করে কারাগারে পাঠিয়েছেন আদালত। রোববার বিকেল তিনটায় পাবনা চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট আবু সালেহ মো. সালাহউদ্দিন খাঁ শুনানি শেষে এ আদেশ দেন। মামলা সুত্রে জানা যায়, অধ্যক্ষ মিজানুর রহমানের বিরুদ্ধে একই কলেজের সহকারী অধ্যাপক মো. আবদুল মান্নান কলেজের বেশকিছু পুরোনো গাছ কাটার অভিযোগে পাবনার আদালতে মামলা দায়ের করেন। ওই মামলার তদন্ত করে প্রতিবেদন দাখিল করতে চাটমোহর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাকে নির্দেশ দেন আদালত। তৎকালীন ইউএনও সরকার অসীম কুমার তদন্ত করে অভিযোগের প্রাথমিক সত্যতা পেয়ে আদালতে প্রতিবেদন দাখিল করেন। তার প্রেক্ষিতে আদালত দন্ডবিধির ৩৭৯/৪০৬/৪২০ ধারায় অপরাধ আমলে নেন এবং সমন জারী করেন। কিন্তু সমনের নির্ধারিত তারিখে হাজির না হওয়ায় অধ্যক্ষ মিজানের বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারী পরোয়ানা জারী করেন আদালত। এর মধ্যে গত বছরের ১৫ ডিসেম্বর অধ্যক্ষ মিজান উচ্চ আদালতে আগাম জামিনের আবেদন করলে বিচারক ৬ সপ্তাহের আগাম জামিন প্রদান করেন এবং জামিনের মেয়াদ শেষে পাবনার চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেটের আদালতে হাজির হওয়ার নির্দেশ দেন। ২৫ জানুয়ারি (শনিবার) উচ্চ আদালতের জামিনের মেয়াদ শেষ হলে রোববার (২৬ জানুয়ারি) পাবনা চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেটের আদালতে হাজির হয়ে আইনজীবির মাধ্যমে জামিন আবেদন করেন মিজান। পরে উভয় পক্ষের আইনজীবিদের বক্তব্য শুনানি শেষে নথি পর্যালোচনা করে অধ্যক্ষ মিজানের জামির আবেদন নামঞ্জুর করে তাকে জেলহাজতে পাঠানোর নির্দেশ দেন বিচারক। পাবনা আইনজীবি সমিতির সাধারণ সম্পাদক ও বাদী পক্ষের আইনজীবি অ্যাডভোকেট কাজী সাজ্জাদ ইকবাল লিটন এর সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।