সাঁথিয়া মাদকের ব্যবসা জমজমাট, ধ্বংসের পথে যুবসমাজ

আব্দুদ দাইন: পাবনার সাঁথিয়া মাদকের জমজমাট ব্যবসা চলছে। ধবংশের পথে যাচ্ছে যুবসমাজ। র‌্যাব, ডিবি ও থানা পুলিশের অভিযানে গ্রেফতার হচ্ছে মাদক ব্যবসায়ীরা। উদ্ধার হচ্ছে হেরোইন, গাজা, ইয়াবাসহ নানা ধরনের মাদক দ্রব্য। ২৬ জানুয়ারী আতাইকুলা বাজার থেকে র‌্যাবের অভিযানে ৬২ কেজি গাজাসহ মিনি ট্রাক আটক হয়, ভুলবাড়িয়া ইউনিয়নের গনেশপুর থেকে ডিবি পুলিশ ৫০০ পিস ইয়াবাসহ বকুল নামের এক মাদক ব্যবসায়ীকে আটক করে। এ ছাড়াও জানুয়ারী মাসে সাঁথিয়া থানায় ১৯ মাদকের মামলায় ২’শ৬৯ পিস ইয়াবা, প্রায় ৫কেজি গাঁজা ও হেরোইন উদ্ধার করা হয়। আইন শংখলা বাহিনীর মাদকের চালান আটকের মাধ্যমে উপজেলায় মাদক ব্যবসার চিত্র ফুটে উঠে । গ্রাম এলাকা নিরাপদ ভেবে ব্যবসায়ীরা ইয়াবা ও গাঁজা পানির মত বিক্রয় করছে প্রত্যেন্ত অঞ্চলে। স্কুল কলেজ পড়–য়া যুবকরা নেশায় আসক্ত হয়ে পড়ছে। দিন দিন বৃদ্ধি পাচ্ছে মাদকাসক্তের সংখ্যা। দিশেহার হয়ে পড়ছে হচ্ছে অভিভাবক ও স্বজনরা।। সাঁথিয়ায় মাদক বিক্রেতাদের ট্রানজিট পয়েন্ট হিসেবে ব্যবহৃত হচ্ছে । ঈশ্বরদী, নগরবাড়ী, কুষ্টিয়া, রাজশাহী, নাটোর ও বগুড়া থেকে দুরপাল্লার বাসে- ট্রাকে আসছে এই মাদক। সুত্র মতে ৩শ৩০ বর্গকিলোমিটার আয়তনের , সাঁথিয়ার ১০টি ইউনিয়ন ও ১টি পৌর এলাকাসহ প্রত্যন্ত গ্রামাঞ্চলে প্রায় ২৫টি স্পটে ইয়াবা, ফেনসিডিল, হেরোইন, গাজাসহ রকম রকম মাদক বিক্রি হচ্ছে। স্পটগুলো হচ্ছে উপজেলার আতাইকুলা, বৃহস্পতিপুর, বনগ্রাম, মিয়াপুর, রসুলপুর, কাশিনাথপুর, শহিদনগর, সিএন্ডবি বাসস্ট্যান্ড, করমজা, ধুলাউড়ি, চৌবাড়িয়া, ভায়নাপাড়া, গনেশপুর, হাটবাড়িয়া বাজার, গৌরিগ্রাম, নন্দনপুর, বোয়াইমারীসহ প্রায় পঁচিশটি স্পট । মাদক মহাজনদের রয়েছে প্রত্যন্ত গ্রামাঞ্চলে ফড়িয়া। বিশেষ কমিশনে এরা বাসস্ট্যান্ড, বাজার, চা দোকান, ও মোড়ে মোড়ে বিক্রি করছে। সাঁথিয়া থানার অফিসার আনচার্জ(ওসি) আসাদুজ্জামান জানান, মাদকের ব্যাপারে জিরো টলারেন্স। অভিযানে মাদক ব্যবসায়ীরা গ্রেপ্তার হচ্ছে, অভিযান চলমান। এরা জেল থেকে বেড়িয়ে এসে আবার জড়িয়ে পরে এই মরণ নেশায়। ইতোমধ্যে সাঁথিয়ার প্রায় ৪০জন অভিভাবক তাদের মাদকাসক্ত সন্তানকে কারাগারে পাঠানোর অনুরোধ জানিয়েছে। সামাজিক সচেতনতা বৃদ্ধি না হলে এই অবক্ষয় রোধ করা দুরূহ