জয়পুরহাটে ২ লাখ টাকা ঘুষ নিয়ে মাদক ব্যবসায়ীকে ছেড়ে দেয়ায় দুই পুলিশ কর্মকর্তা সাময়িক বরখাস্ত

শফিকুল ইসলাম: জয়পুরহাটে দুই পুলিশ কর্মকর্তাসহ তিন জনের বিরুদ্ধে শাস্তিমূলক ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে। জয়পুরহাটের পাঁচবিবি থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) আমিনুর রহমান, সহকারী উপ-পরিদর্শক (এএসআই) রবিউল আওয়ালকে মাদক মামলার আসামীকে টাকার বিনিময়ে ছেড়ে দেওয়ার অভিযোগে বরখাস্ত করা হয়েছে আর ওয়্যারলেস অপারেটর (কনস্টেবল) মুক্তার হোসেনের বিরুদ্ধে শাস্তিমূলক ব্যবস্থা নিতে পুলিশের সংশ্লিষ্ট বিভাগে জানানো হয়েছে আজ শনিবার বিকেলে জয়পুরহাটের পুলিশ সুপার মোহাম্মদ সালাম কবির বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। পাঁচবিবি থানা পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, এস আই আমিনুর রহমান, এএসআই রবিউল আওয়াল ও ওয়্যারলেস অপারেটর কনস্টেবল মুক্তার হোসেন হিলি এলাকায় ঢুকে আমজাদ হোসেন নামে এক মাদক ব্যবসায়ীকে ইয়াবাসহ আটক করেন। এরপর তাঁরা মোটা অংকের টাকা বিনিময়ে ওই মাদক ব্যবসায়ীকে ছেড়ে দিয়েছেন। পাঁচবিবি থানা ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, গত বৃহষ্পতিবার বিকেলে পাঁচবিবি থানার অভিযুক্ত ওই ৩ পুলিশ সদস্য পাশ^বর্তী দিনাজপুর জেলার হাকিমপুর থানার অর্ন্তগত হাঁড়িপুকুর এলাকা থেকে দিনাজপুরের হাকিমপুর উপজেলার রায়ভাগ গ্রামের কোরবান আলীর ছেলে মাদক কারবারী আমজাদ হোসেনকে ১ হাজার পিস ইয়াবাসহ আটক করেন। আটক করার পর মাদক কারবারী আমজাদকে পাঁচবিবি উপজেলার সোনাপুর এলাকায় নিয়ে গিয়ে এস আই আমিনুরের সোর্স হিসেবে পরিচিত দিনাজপুর জেলার নবাবগঞ্জ উপজেলার হাঁসের পাড়া গ্রামের মারফিদুল ইসলাম ও শাকিল হোসেন এর মধ্যস্থতায় ২ লাখ টাকায় আমজাদকে ছেড়ে দেয়, পরে আরও পঞ্চাশ হাজার টাকার জন্য এস আই আমিনুরের সোর্সরা আমজাদকে চাপ দিতে থাকে। বাধ্য হয়ে আমজাদ হোসেনের পরিবার বিষয়টি জয়পুরহাট জেলা পুলিশের উর্দ্ধতন কর্তৃপক্ষকে জানান। এঘটনার পর জয়পুরহাট পুলিশ সুপার মোহাম্মদ সালাম কবির তাঁদের থানা থেকে প্রত্যাহার করে পুলিশ লাইনসে সংযুক্ত করেন। পাঁচবিবি থানার অফিসার ইনচার্জ মুনসুর রহমান বলেন, এসপি স্যারের নির্দেশের পর শুক্রবার রাতেই এসআই আমিনুর রহমান, এএসআই রবিউল আওয়াল ও ওয়্যারলেস অপারেটর কনস্টেবল মুক্তার হোসেন পাঁচবিবি থেকে চলে গেছেন। তাঁরা তিন জন হিলি এলাকায় ঢুকে এক মাদক ব্যবসায়ীকে আটকের পর টাকা বিনিময়ে ছেড়ে দিয়েছিলেন। জয়পুরহাটের পুলিশ সুপার মোহাম্মদ সালাম কবির বলেন, পাঁচবিবি থানার এসআই, এএসআই ও ওয়্যারলেস অপারেটর হিলি এলাকায় ঢুকে এক মাদক ব্যবসায়ীকে আটক করে টাকার বিনিময়ে তাঁকে ছেড়ে দিয়েছে। একারণে এসআই ও এএসআই সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে। ওয়্যারলেস অপারেটের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে পুলিশের টেলিকম বিভাগে জানানো হয়েছে। পুলিশের কেউ অপরাধে জড়ালে তাঁকে ছাড় দেওয়া হবে না বলে এসপি জানিয়েছেন।