ফ্ল্যাট ভাড়া নিয়ে দেহ ব্যবসা, দুই নারীসহ গ্রেফতার ৪

বাংলাদেশ প্রতিবেদক: নারায়ণগঞ্জ সদর উপজেলার ফতুল্লায় ফ্ল্যাট বাসা ভাড়া নিয়ে দেহ ব্যবসার অভিযোগে আপত্তিকর অবস্থায় দুই যৌনকর্মীসহ তিন নারীকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। সোমবার (১০ ফেব্রুয়ারি) গভীর রাতে পুলিশের জরুরি পরিসেবা ৯৯৯ নম্বরে কল পেয়ে সদর উপজেলার ফতুল্লা থানার ধর্মগঞ্জের পাকাপুল এলাকায় অভিযান চালিয়ে নিলুফার ২ তলা ভবনের নিচ তলার ফ্ল্যাট থেকে তাদের গ্রেফতার করা হয়।

মঙ্গলবার দুপুরে তাদের বিরুদ্ধে মামলা দায়েরের পর পুলিশ বিষয়টি গণমাধ্যমকে জানায়।

গ্রেফতারকৃতরা হলেন, ধর্মগঞ্জের ভিতর পাকাপুল এলাকার নিলুফার বাড়ির ভাড়াটিয়া মনির হোসেনের স্ত্রী যৌন ব্যবসায়ী ডলি বেগম (৩৬), ফতুল্লার বিসিক কলাবাগান এলাকার পান্নার বাড়ির ভাড়াটিয়া রাজ্জাক মিয়ার মেয়ে মুন্নী (২২), ধর্মগঞ্জ কুটির বাড়ির ভাড়াটিয়া মৃত চান মিয়ার ছেলে আল আমিন (৩৩) ও ধর্মগঞ্জ মাওলা বাজার এলাকার ফিরোজ মিয়ার বাড়ির ভাড়াটিয়া মৃত আব্দুল হকের মেয়ে হাসনা (২৩)।

ফতুল্লা মডেল থানার পরিদর্শক (তদন্ত) মো. শাহাদাত হোসেন জানান, ডলি বেগম ধর্মগঞ্জের পাকাপুল এলাকার নিলুফার ২ তলা ভবনের নিচ তলায় ফ্ল্যাট ভাড়া নিয়ে যুবতীদের নিয়ে পতিতাবৃত্তি চালিয়ে আসছিলেন। এতে এলাকার মান সম্মান ও সামাজিক পরিবেশ নষ্ট হচ্ছিল। তার বাসায় বিভিন্ন বয়সের লোকদের দিনরাত আনাগোনা ছিল। স্থানীয় মহিলা ইউপি সদস্য সাজেদা বেগম ৯৯৯ নম্বরে কল করে এ অভিযোগ করেন।

তিনি জানান, পরে পুলিশের একটি টিম ডলির ফ্ল্যাটে অভিযান চালালে ঘটনার সত্যতা পাওয়া যায়। অভিযানকালে ওই ফ্ল্যাটে দেহ ব্যবসায়ী ডলিসহ চারজনকে গ্রেফতার করা হয়।

এ ঘটনায় ফতুল্লা মডেল থানার এসআই রাসেল শেখ বাদী হয়ে থানায় মামলা দায়ের করেন। পরে দুপুরে গ্রেফতারকৃতদের আদালতে পাঠানো হয়।