সিংগাইরে কাজী মার্কেটের ভাড়া মওকুফ, মানবতার দৃষ্টান্ত স্থাপন করলেন সোহেল রানা

মিজানুর রহমান বাদল: সারাদেশে করোনা ভাইরাস সংক্রমনে সকল কাজ-কর্মসহ জনজীবন স্থবির হয়ে পড়েছে।।যার কারনে সকল মানুষ কর্মহীন হয়ে পড়েছে। সেই সাথে সকল ব্যবসা প্রতিষ্ঠান বন্ধ হয়ে যাওয়ায় অর্থ সংকটে পড়ে যায় সকল ব্যবসায়ীরা। করোনা ভাইরাস সংক্রমণ সরকারের নির্দেশে দেশের সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠান,অফিস আদালত,ব্যবসা প্রতিষ্ঠান বন্ধ ও জনসাধারণকে ঘরবন্ধী হয়ে পড়ে। আর এ ঘোষণা করাতে ব্যবসায়ীদের আয়-রোজগার বন্ধ হওয়ায় সকল ব্যবসায়ীদের মত মানিকগঞ্জের সিংগাইর উপজেলার দোকান ভাড়া,কর্মচারীর বেতন ,বিদ্যুৎ বিল নিয়ে পড়ে বিপাকে পড়ে যায়। আর এ অবস্থায় সিংগাইর বাজার শহিদ রফিক সড়কের কাজী মার্কেটের মালিক কাজী সোহেল রানা ভাড়াটিয়াদের কথা বিচেনা করে ১২টি দোকানের এপ্রিল মাসের ভাড়া প্রায় লক্ষাধিক টাকা মওকুফ করে মানবতার দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছেন। দোকান ভাড়া মওকুফ করে মানবতা স্থাপন করা কাজী সোহেল রানাকে সিংগাইর উপজেলার ব্যবসায়ী সংগঠন ধন্যবাদ জানিয়েছেন। কাজী সোহেল রানার বাড়ী উপজেলার পৌর এলাকার আজিমপুর মহল্লার ২ নং ওয়ার্ডের কাজী রমিজ উদ্দিনের ছেলে। এ ব্যাপারে ভাড়াটিয়া কাজী সোহেল রানা যুগান্তরকে বলেন-করোনা পরিস্থিতি মোকাবেলায় দোকানপাট সব বন্ধ হয়ে যায়। এতে সকলের আয়-রোগারের পথ না থাকায় ব্যবসায়ীরা পড়ে যায় বিপাকে । তাই মানবিক দিক বিবেচনা করে আমার মার্কেটে ১২টি দোকানের এপ্রিল মাসের ভাড়া মওকুফ করে দিয়েছি। তিনি আরও বলেন এ মহামারি র্দূযোগ মুহূর্তে সকল মার্কেট মালিকগণ ভাড়াটিয়াদের পাশে থাকার আহবান করছি। এ ব্যাপারে ভাড়াটিয়া মুকুল,বাবুল হোসন,আল-আমিন,সিরাজুল ইসলাম বলেন-প্রায় দেড় মাস যাবৎ দোকানপাট বন্ধ থাকায় আমাদের সকল ব্যবসা বাণিজ্য বন্ধ হয়ে গেছে। আমরা কিভাবে ভাড়া দিব খুব চিন্তায় ছিলাম। সেই মুহূর্তে আমাদের মার্কেটের মালিক কাজী সোহেল রানা আমাদের ১ মাসের ভাড়া মওকুফ করে দিয়েছে।এতে আমাদের বেশ উপকার হয়েছে। সবারই উচিত ভাড়াটিয়াদের এ মুহূর্তে সহযোগীতা করা।