রায়পুর সরকারি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আহত আবদুর রহিম

তাবারক হোসেন আজাদ: প্রায় ৬ মাস আগে টাকা লেনদেন নিয়ে ঝগড়া ও মারামারি হয়। অবশেষে গ্রাম্য শালিশে জরিমানা দিয়ে উভয় পক্ষে ঘটনার মিমাংশা হয়। কিন্তু এতে ক্ষান্ত না হয়ে অটোচালককে বাড়ীর সামনে থেকে তুলে একটি ঘরে নিয়ে হাত-মুখ বেঁধে নির্যাতন করে হত্যার চেষ্টা চালানো হয়েছে। বর্তমানে আহত আবদুর রহিম (৩৫) রায়পুর সরকারি হাসপাতালের মহিলা ওয়ার্ডে চিকিৎসাধীন রয়েছেন। ঘটনাটি ঘটেছে-রোববার রাতে ( ৬ সেপ্টেম্বর) চরমোহনা ইউপির ৯নং ওয়ার্ড তুলাতুলি এলাকার বকসি হাওলাদান বাড়ীতে। সোমবার (৭ সেপ্টেম্বর) দুপুরে ৭ জনের নামে রায়পুর থানায় লিখিত অভিযোগ করেছেন অটোচালকের স্ত্রী আঁখি আক্তার।।

হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আবদুর রহিম জানান, একই এলাকার আবু কালামের ছেলের স্ত্রী শাহনাজের সাথে সুদের টাকার লেনদেন ছিলো। ৬ মাস আগে স্থানীভাবে শালিশ বৈঠকে আবুল কালামের পরিবার হেরে গিয়ে ৬ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়। এতে ক্ষুদ্ধ হয়ে প্রতিশোধ নিতে মরিয়া হয়ে উঠে আবু কালামের পরিবার। রোববার রাত ১০ টার সময় রায়পুর বাজার থেকে বাড়ীর সামনে গিয়ে রাস্তার উপর দাঁড়াই। এসময় পেছন থেকে হাত-মুখ বেঁধে একই এলাকার দিলু, হোসেন, শরিফ, রাসেল ও নিপু বেগম অন্য স্থানে নির্জন বাড়ীতে নিয়ে লাঠি, রড দিয়ে পিটিয়ে হত্যার চেষ্টা চালায়। এসময় চিৎকার দিলে লোকজন তাকে উদ্ধার করে সরকারি হাসপাতালে ভর্তি করেন।

অভিযুক্ত আবু কালাম ও দিপু বলেন, আমরা কিছুই জানি না। এঘটনায় মিথ্যা প্রচারনা করছে।।

রায়পুর থানার ওসি আবদুল জলিল বলেন, এঘটনা জানা নাই। ক্ষতিগ্রস্থ অটো চালক অভিযোগ দিলে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

Previous articleইবিতে সাদা দলের নতুন কমিটি
Next articleউল্লাপাড়ায় তিন ইউনিয়নে ২শ ১০ পরিবারের মাঝে ত্রাণ
আজকের বাংলাদেশ ডিজিটাল নিউজ পেপার এখন দেশ-বিদেশের সর্বশেষ খবর নিয়ে প্রতিদিন অনলাইনে । ব্রেকিং নিউজ, জাতীয়, আন্তর্জাতিক রিপোর্টিং, রাজনীতি, বিনোদন, খেলাধুলা আরও অন্যান্য সংবাদ বিভাগ । আমাদের হাত বাধা নেই, আমাদের চোখ খোলা আমরা বলতে পারি ।