রায়পুরে শিশু ধর্ষণ মামলায় যুবককে কারাগারে প্রেরন

তাবারক হোসেন আজাদ: লক্ষ্মীপুরের রায়পুরে ‘সমাধিতে ধুপকাঠি জ্বালাতে গিয়ে ১০ বছরের এক শিশু ধর্ষণ চেষ্টার শিকার হয়েছ। বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় (৮ অক্টোবর) উপজেলার কেরোয়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটেছে। রাতেই একই এলাকা থেকে নিখিল চন্দ্র দাস (৪৩) নামের এক লম্পট যুবককে-আটক করে শুক্রবার (৯ অক্টোবর) ধর্ষন চেষ্টা মামলায় গ্রেপ্তার দেখিয়ে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠিয়েছে পুলিশ।

বৃহস্পতিবার থানায় শিশুটির মা বাদি হয়ে নিখিলকে আসামি করে নারি ও শিশু নির্যাতন আইনে মামলা করেছেন। শুক্রবার সকালে আহত শিশুকে মেডিকেলের জন্য সদর হাসপাতালে পাঠিয়েছেন পুলিশ।

পুলিশ ও মামলার এজাহারে জানা যায়, প্রতিদিনের ন্যায় বৃহস্পতিবার কেরোয়া ইউপি’র নবদ্বীপ বেপারি বাড়ির নারায়ন দেবনাথের শিশু কন্যা সমাধিস্থলে সান্ধ্যকালীন ধুপকাঠি জ্বালাতে যায়। এসময় পিছন থেকে একই এলাকার দাস বাড়ির মৃত কৃষ্ণ মোহন দাসের বখাটে ছেলে (মাদকসেবি) নিখিল চন্দ্র দাস শিশুটির মুখ চেপে ধরে পার্শ্ববর্তী সুপারির বাগানে নিয়ে ধর্ষণ চেষ্টা চালায়। এসময় শিশুটি বাসায় ফিরতে দেরি হওয়ায় তার মায়ের ডাকাডাকিতে সমাধির কাছেই সুপারির বাগান থেকে শিশুটি চিৎকার করে। তখন সেখানে ছুটে গিয়ে আশপাশের লোকজন গিয়ে লম্পটকে আটক করে গাছের সাথে বেঁধে গনপিটুনি দেয়। পরে ইউপি চেয়ারম্যান শামসুল ইসলাম সামুকে খবর দিলে তিনি ঘটনাস্থলে এসে এসআই মো. সাফায়েতের হাতে তাকে সোপর্দ করে।

এঘটনায় অভিযুক্ত নিখিল পুলিশ হেফাজতে থাকায় তার বক্তব্য নেয়া সম্ভব হয়নি। এসময় তার স্বজনরাও কোন বক্তব্যও দিতে চাননি।।

রায়পুর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মো. আবদুল জলিল বলেন,এঘটনায় শিশুর মা বাদি হয়ে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে মামলা করেছেন। আহত শিশুকে সদর হাসপাতাল ও লম্পট নিখিলকে কারাগারে পাঠানো হয়েছে।