জয়পুরহাটের পাঁচবিবিতে শিশু অপহরণ ও হত্যা মামলায় ৫ জনের মৃত্যুদণ্ড

শফিকুল ইসলাম: জয়পুরহাটের পাঁচবিবিতে শিশু অপহরন ও হত্যার ঘটনায় ৫ জনের মৃত্যুসহ প্রত্যেককে যাবজ্জীবন কারাদন্ডের রায় দিয়েছে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইবুনাল। আজ সোমবার দুপুরে এক জনাকীর্ন আদালতে এ রায় প্রদান করেন ওই আদালতের বিচারক মোঃ রুস্তম আলী। দন্ডপ্রাপ্তরা হলেন, পাঁচবিবি উপজেলার রশিদপুর মোলান গ্রামের উত্তম কুমার সরকার (২৯), বিরেন চন্দ্র বর্মন ওরফে বিরেশ চন্দ্র বর্মন (৩৮), সন্তেষ কুমার সরকার ওরফে কেটলু (২৮), বিনধারা গ্রামের মোস্তাফিজুর রহমান ওরফে রাব্বু(৩৮) ও ওবাইদুল ইসলাম (২৫)। মামরার সংক্ষিপ্ত বিবরনে জানা যায়, ২০১৫ সালের ২২ডিসেম্বর দুপুরে একই উপজেলার রশিদপুর মোলান গ্রামের পরেশ চন্দ্রের আড়াই বছরের শিশু কন্যা আরাধা রানী বাড়ির পাশে খেলা করছিল। খেলাধূলার এক পর্যায়ে আসামীরা শিশুটিকে অপহরন করে নিয়ে যাওয়ার পর মুক্তিপন দাবী করেন। মুক্তিপন না পেয়ে আসামীরা শ^াসরোধ করে হত্যার পর শিশুটির মরদেহ রশিদপুর মোলান বাজারের পাশে একটি পুকুর পাড়ের ঝোপের মধ্যে ফেলে রেখে পালিয়ে যায়। পরে ২৫ডিসেম্বর স্থানীয়দের খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে শিশু আরাধার মরদেহ উদ্ধার করে জয়পুরহাট জেলা আধুনিক হাসপাতালে ময়না তদন্ত সম্পন্ন করে। এ ব্যাপারে শিশুটির বাবা বাদী হয়ে ২২ডিসেম্বর পাঁচবিবি থানায় যে অপহরণ মামলা করেন তা পরবর্তীকালে অপহরন ও হত্যা মামলা হিসেবে পুলিশ আমলে নেয়। এ হত্যাকান্ডের সাথে পুলিশ সম্পৃক্ততা পেয়ে পুলিশ ওই ৫ আসামীর বিরুদ্ধে আদালতে অভিযোগ পত্র দায়ের করে। দীর্ঘ শুনানী শেষে এক জনার্কীন আদালতে ওই ৫ জনের প্রত্যেককে অপহরন মামলায় যাবজ্জীবন ও হত্যা মামলায় প্রত্যেককে মৃত্যুদন্ড প্রদান করেন বিচারক। জয়পুরহাট আদালতের রাষ্ট্র পক্ষের আইনজীবি এ্যাডভোকেট নৃপেন্দ্রনাথ মন্ডল ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেন। মামলায় রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবি ছিলেন, এ্যাডঃ নৃপেন্দ্রনাথ মন্ডল পিপি, আসামীপক্ষে আইনজীবী রাইহান নবী, আফজাল হোসেন ও হেনা কবির। আসামীপক্ষের আইনজীবি রায়হান নবী বলেন, আমরা এ রায়ে সন্তুষ্ট নয়। আমরা উচ্চ আদালতে আপিল করব।