বাংলাদেশ প্রতিবেদক: মানিকগঞ্জের ঘিওর উপজেলা যুবলীগের শিক্ষা ও পাঠাগার বিষয়ক সম্পাদক মহির উদ্দিনের বাড়ি থেকে ডলি আক্তার (২১) নামে এক গৃহবধূর মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। এ ঘটনার পর থেকে পলাতক রয়েছে যুবলীগ নেতা মহির উদ্দিন।

বুধবার (২০ জানুয়ারি) দুপুরে উপজেলার বড়টিয়া ইউনিয়নের হিজুলিয়া গ্রাম থেকে ডলির মরদেহ উদ্ধার করে মানিকগঞ্জ জেলা হাসপাতাল মর্গে পাঠায় পুলিশ। ডলি আক্তার একই গ্রামের হযরত আলীর বড় মেয়ে।

ডলির বড় ভাই সানি মিয়া বলেন, দুবছর আগে তার বোনের সঙ্গে একই গ্রামের আবুল প্রধানের ছেলে যুবলীগ নেতা মহির উদ্দিনের (৪০) বিয়ে হয়। পরিবারের লোকজন প্রথমে তার সঙ্গে বিয়ে দিতে রাজি না হলেও পরে নানা চাপের মুখে তার সঙ্গে বোনকে বিয়ে দিতে বাধ্য হন তারা। কিন্তু মহির উদ্দিন মাদকাসক্ত হওয়ায় প্রায়ই তার বোনকে মারধরসহ শারীরিক ও মানসিক নির্যাতন করতো। এক সপ্তাহ আগে বোন (ডলি) একটি ছেলে সন্তান প্রসব করে তাদের বাড়িতে গেলে সেখানে গিয়েও বোনকে মারধর করে মহির উদ্দিন। এর প্রতিবাদ করলে তার সাথেও হাতাহাতি হয়। পরে স্বামীর সাথে বোন শ্বশুর বাড়িতে চলে আসে।

বুধবার সকালে খবর পেয়ে মহির উদ্দিনের বাড়িতে গিয়ে তিনি তার বোনের লাশ বাড়ির উঠানে পড়ে থাকতে দেখেন বলে জানান মৃতের বড় ভাই।

ঘিওর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) রিয়াজ উদ্দিন আহমেদ বিপ্লব জানান, পুলিশ নিহতের লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য জেলা হাসপাতালে মর্গে পাঠায়। ময়নাতদন্তের রিপোর্ট পাওয়া গেলেই মৃত্যুর সঠিক কারণ জানা যাবে। এ ঘটনায় তদন্ত অনুযায়ী আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে জানান তিনি।