মারুফা মির্জা: সিরাজগঞ্জের এনায়েতপুর থানার তাঁত শিল্প সমৃদ্ধ গোপিনাথপুরে গায়ের মানুষের ভালবাসা আর উষ্ণ সংবর্ধনায় সিক্ত হলেন বান্দরবানের ঐতিহ্যবাহী বোমাং সার্কেলের ১৬ তম রাজা কে এস প্রু এর দ্বিতীয় রাজকণ্যা নারী অধিকার কর্মী ডনাই প্রু নেলী তার স্বামী এবং সাথে থাকা সফরসঙ্গীরা। এ সময় মুগ্ধ একুশে ফোরামের দৃষ্টিনন্দন পবিত্র শহীদ মিনার ও বাগান পরিদর্শন করে মুগ্ধ হন তারা। জানা যায়, মানবিক সেবা সংগঠন সিরাজগঞ্জ একুশে ফোরামের উদ্যোগে নির্মিত পরিচ্ছন্ন শহীদ মিনার ও দৃষ্টিনন্দন বাগানের অনন্য সৌন্দর্য্যরে বিষয়টি জানতে পেরে বান্দরবান রাজ পরিবারের পক্ষ থেকে পরিদর্শন করা হবে বলে ফোরাম কর্তৃপক্ষকে অবহিত করা হয়। সেই থেকেই প্রস্তুতি তাদের। খবরটি ছড়িয়ে পড়ে গ্রাম জুড়ে। মঙ্গলবার রাতে সেই শুভক্ষন। তাই রাস্তার দু পাশে রাজকণ্যা ও অনন্য কল্যাণ সংগঠনের এক্সিকিউটিভ ডিরেক্টর ডনাই প্রু নেলীকে দেখার জন্য গায়ের মানুষের অপেক্ষা ২ ঘন্টা আগে থেকেই। তিনি আসা মাত্রই রাস্তার দু পাশে দাঁড়িয়ে থাকা শত-শত বিভিন্ন বয়সী নারী-পুরুষ তাকে হাতে তালি দিয়ে শুভেচ্ছা জানান। গ্রাম প্রধান গাজী মোজাম্মেল হক, সাবেক ইউপি সদস্য আব্দুল মতিন মির্জা, একুশে ফোরামের সাধারন সম্পাদক ফজলুল হক ডনু, একুশে টেলিভিশনের সিরাজগঞ্জ প্রতিনিধি স্বপন মির্জা, ব্যবসায়ী তফাজ্জল হোসেন বাবলু, দৈনিক ইত্তেফাক পত্রিকার চৌহালী সংবাদদাতা মারুফা মির্জা, সমাজ সেবক ইসমাইল হোসেন সিরাজী, আতিয়ার রহমান সহ একুশে ফোরামের সদস্যরা তাদের ফুলের তোড়া দিয়ে বরণ করে নেয়। এরপর শহীদ মিনারে শ্রদ্ধা নিবেদন এবং গাছে-গাছে বৈদ্যুতিক ফানুষ আর নানা আলোয় ও পৃথিবীর নানান ফলে ফুলে সাজানো একুশের বাগান পরিদর্শন করেন তিনি। এরপর তাকে একপলক দেখার জন্য অগনিত নারীরা হাজির হলে তিনি পাশের কালী মন্দির চত্বরে ছুটে গিয়ে তাদের সাথে কথা বলেন। বলেন, নারী নির্যাতনের বিরুদ্ধে সকলকে সজাগ থাকতে। পরামর্শ দেন নারীদের নানা শারীরিক সমস্যায় বোবা না থেকে অভিভাবককে সহযোগীতা করতে। লজ্জা নয়, নারীকে সুস্থ্য-সবল থাকতে হবে। পুরুষের মতই সমান তালে সমাজে ভুমিকা রাখতে হবে। কুসংস্কারের পথে পা বাড়ানো নয়। আমাদেরও আছে অধিকার। আপনারা আবার যখন ডাকবেন আমি আসবো। ঘোষনা দিয়ে যাচ্ছি বিপদে যেমন পাহাড়ী নারীদের অধিকার নিয়ে পাশে থাকছি, তেমনী এনায়েতপুরের সমতলের নারীদেরও পাশে থাকবো। আমরাও পুরুষের পাশাপাশি মুক্তির জয়গান শোনাতে চাই। বাংলাদেশকে এগিয়ে নিতে চাই। এজন্য সবাইকে ঐক্যবদ্ধ হতে হবে। এসময় রাজকণ্যার সাথে ছিল তার স্বামী সুধেন্দ্রু বিকাশ চাকমা, বান্ধবী নারী নেত্রী আতিকা মুনমুন, তার স্বামী আইটি বিশেষজ্ঞ ফেরদৌস আজম খান। এরপর রাজকণ্যা একুশের ফোরাম বাগানের তাবুতে বসে রাতের খাবার খেয়ে সবার মঙ্গল কামনা করে বিদায় নেন।

Previous articleজয়পুরহাটে প্রেমিককে খুঁজতে এসে গণধর্ষণের শিকার গার্মেন্টসকর্মী, ইউপি সদস্যসহ গ্রেফতার ২
Next articleকলাপাড়া রিপোর্টার্স ক্লাব’র ৫ম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী পালিত
আজকের বাংলাদেশ ডিজিটাল নিউজ পেপার এখন দেশ-বিদেশের সর্বশেষ খবর নিয়ে প্রতিদিন অনলাইনে । ব্রেকিং নিউজ, জাতীয়, আন্তর্জাতিক রিপোর্টিং, রাজনীতি, বিনোদন, খেলাধুলা আরও অন্যান্য সংবাদ বিভাগ । আমাদের হাত বাধা নেই, আমাদের চোখ খোলা আমরা বলতে পারি ।