জি এম মিন্টু: আসন্ন ২৮ ফেব্রুয়ারী কেশবপুর পৌরসভা নির্বাচনে ধানের শীষ প্রতিকের পক্ষে ভোট চাওয়ার অভিযোগে আওয়ামীলীগের উঠতি যুবকেররা দুই ছাত্রদলের নেতাকে মারপিটসহ জোরপূর্বক ধরে নিয়ে যাওয়ার অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ব্যাপারে প্রতিকার চেয়ে বুধবার ধানের শীষ প্রতিকের প্রার্থী আব্দুস সামাদ বিশ্বাস রিটার্নিং অফিসার ও উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার কাছে লিখিত অভিযোগ দাখিল করেছেন।
অভিযোগ সূত্রে জানা গেছে, গত ১৬ ফেব্রুয়ারী রাত সাড়ে ৭টার দিকে কেশবপুর জাতীয়তাবাদী ছাত্রদলের আহবায়ক আজিজুর রহমান ও যুগ্ম আহবায়ক রাহাদুল ইসলাম নেতাকর্মীদের নিয়ে কেশবপুর শহরের স্বর্ণপট্টিতে সেতু প্রেসের সামনে তার দলের প্রার্থী আব্দুস সামাদ বিশ্বাসের পক্ষে ধানের শীষ প্রতিকের ভোট প্রার্থনা করছিলেন। এ সময় নৌকা প্রতিকের উঠতি যুবক জামাল উদ্দীন, রিপণ, জুয়েলের নেতৃত্বে ১২/১৩ জন সন্ত্রাসী তাদের ওপর হামলা চালিয়ে এলোপাতাড়িভাবে পিটিয়ে জখমসহ জোরপূর্বক মটর সাইকেলে তুলে নিয়ে যায়। পরাবর্তীতে বিএনপি প্রার্থী আব্দুস সামাদ বিশ্বাস বিষয়টি থানা পুলিশকে অবহিত করলে তাদের ছেড়ে দেয়া হয় বলে অভিযোগ।
এ ব্যাপারে বিএনপি প্রার্থী আব্দুস সামাদ বিশ্বাস বলেন, নির্বাচনে তার নেতাকর্মীরা উজ্জীবিত। ভোট বানচাল করার লক্ষ্যে আওয়ামীলীগের চিহ্নিত সন্ত্রাসীরা তার নেতাকর্মীদের মাঠে নামতে দিচ্ছে না। ফলে ভোট নিরপেক্ষ হবে কিনা তা নিয়ে তিনি দ্বিধাদ্বন্দ্বে রয়েছেন।
রিটার্নিং অফিসার ও উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা এমএম আরাফাত হোসেন বলেন, অভিযোগ পেয়েছি। যাচাই বাছাই করে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

Previous articleএনায়েতপুরে রাজাকার পুত্র বজলু মুক্তিযোদ্ধা তালিকা হতে বাদ
Next articleমাদারীপুরে প্রতিপক্ষের হামলায় আহত যুবকের মৃত্যু
আজকের বাংলাদেশ ডিজিটাল নিউজ পেপার এখন দেশ-বিদেশের সর্বশেষ খবর নিয়ে প্রতিদিন অনলাইনে । ব্রেকিং নিউজ, জাতীয়, আন্তর্জাতিক রিপোর্টিং, রাজনীতি, বিনোদন, খেলাধুলা আরও অন্যান্য সংবাদ বিভাগ । আমাদের হাত বাধা নেই, আমাদের চোখ খোলা আমরা বলতে পারি ।