আরিফুর রহমান: মাদারীপুরের রাজৈর উপজেলার কদমবাড়ী ইউনিয়নের ইকরাবাড়ী গ্রামে প্রেমিকার বাড়ির সামনের একটি গাছ থেকে বৃহস্পতিবার সকালে নিতাই বারুরী (২৮) নামে এক প্রেমিকের ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার করেছে রাজৈর থানা পুলিশ। নিহত নিতাই একই ইউনিয়নের হিজলবাড়ি গ্রামের সুশীল বারুরীর ছেলে এবং কদমবাড়ী বাজারের মোবাইল ব্যবসায়ী।
পারিবারিক ও পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, নিতাই বারুরীর সাথে ইকরাবাড়ি গ্রামের বাবুল গাইনের মেয়ে সঙ্গীতা গাইনের (২৫) প্রেমের সম্পর্ক ছিল। তারা নোটারী পাবলিকের মাধ্যমে একে অপরকে বিয়েও করেছে। কিন্তু বাধ সাধে সঙ্গীতার পরিবার। নিতাই বারুরীর সাথে তারা (সঙ্গীতার পরিবার) সঙ্গীতাকে পারিবারিকভাবে বিয়ে দিতে রাজী ছিল না। এই কারণে নিতাই এবং সঙ্গীতা মোবাইলে কথা বলত এবং পালিয়ে দেখা করত। বুধবার সকালে নিতাই মাদারীপুর যাওয়ার কথা বলে বাড়ি থেকে বের হয়ে আর বাড়ি ফেরেনি। বৃহস্পতিবার সকালে সঙ্গীতাদের বাড়ির সামনের একটি জামগাছে নিতাইয়ের লাশ ঝুলতে দেখে এলাকাবাসী পুলিশে খবর দেয়। পরে রাজৈর থানা পুলিশ গিয়ে গাছ থেকে নিতাইয়ের লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য মাদারীপুর সদর হাসপাতালের মর্গে প্রেরণ করে।
নিতাইয়ের প্রেমিকা সঙ্গীতা গাইন বলেন, তার সাথে আমার ৩ বছরের সম্পর্ক। তার সাথে আমার বিয়েও হয়েছে। বুধবার সারারাত আমরা মোবাইলে কথা বলেছি। এমনকি ভোর ৫টা পর্যন্ত আমাদের কথা হয়েছে। তারপর কি হল, বুঝতে পারলাম না।
নিতাইয়ের বাবা সুশীল বারুরী বলেন, আমার ছেলেকে ওরা ডেকে নিয়ে হত্যা করে লাশ গাছে ঝুলিয়ে রেখেছে। আমার ছেলে আত্মহত্যা করতে পারেনা। আমি এ ঘটনার বিচার চাই।
রাজৈর থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা শেখ সাদি বলেন, প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে প্রেম ঘটিত কারণে ছেলেটি আত্মহত্যা করেছে। তবে ময়না তদন্তের রিপোর্টের পর প্রকৃত ঘটনা জানা যাবে।

Previous articleসাঁথিয়ায় পাউবো’র ক্যানেল থেকে বাঁধ উচ্ছেদ, ঋনগ্রস্ত মৎস্যচাষীরা হতাশ
Next articleরংপুরে নকল প্রসাধনি কারখানায় অভিযান: ৫ লাখ টাকার মালামাল উদ্ধার
আজকের বাংলাদেশ ডিজিটাল নিউজ পেপার এখন দেশ-বিদেশের সর্বশেষ খবর নিয়ে প্রতিদিন অনলাইনে । ব্রেকিং নিউজ, জাতীয়, আন্তর্জাতিক রিপোর্টিং, রাজনীতি, বিনোদন, খেলাধুলা আরও অন্যান্য সংবাদ বিভাগ । আমাদের হাত বাধা নেই, আমাদের চোখ খোলা আমরা বলতে পারি ।