তাবারক হোসেন আজাদ: লক্ষ্মীপুরের রায়পুরে বিয়ের দাবিতে প্রেমিক রাজিবের (৩৫) বাড়িতে অনশনে বসেছেন ভোলার চরফ্যাশানের জেসমিন আক্তার নামে দুই সন্তানের জননী গৃহবধূ (২৫)।

উপজেলার উত্তর চরবংশি ইউনিয়নের খাসেরহাট এলাকায় হা হাওলাদার বাড়ীতে ঘটনাটি ঘটেছে।

এ নিয়ে মঙ্গলবার (২ মার্চ) সকালে কয়েকজন সাংবাদিক এলাকায় উপস্থিত হলে জনসাধারণের মধ্যে চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়। এ সময় প্রেমিক রাজিবের বাড়িতে ভিড় জমান এলাকাবাসী।

জানা যায়, ঢাকার কালিগন্জে স্বামী ও দুই সন্তান নিয়ে ৪ বছর ভাড়া বাসায় বসবাস করছিলেন। তাদের পাশের বাসায় ভাড়া থাকতেন রাজিবের দুই ফুফুও তাদের পরিবার নিয়ে বসবাস করতেন। রাজিব সানসিল্ক কোম্পানির কেরানিগঞ্জের মাঠ কর্মী ছিলেন। ফুফুর বাসায় আসাযাওয়ার ফলে গত ২ বছর ধরে রাজিবের সাথে গৃহবধু জেসমিনের পরোকিয়া গড়ে উঠে। একারনে জেসমিনের সাথে তার স্বামীর বিরোধ দেখা দেয়। পরে রাজিব করোনার সময় চাকুরি ছেড়ে গ্রামে চলে আসে। অবশেষে গত ৫ দিন আগে জেসমিন স্বামী ও এক ছেলে (৬) ও এক মেয়ে (৮) রেখে প্রেমিক রাজিবের রায়পুরের খাসেরহাট গ্রামের বাড়িতে আসে। কিন্তু রাজিব ও তার অভিভাবক মিথ্যা বলে জেসমিনকে তাড়িয়ে দেয়। নিরুপায় হয়ে বিচার ও বিয়ের দাবি জানিয়ে লক্ষ্মীপুর জেলা র্যাবের কাছে রিকিত অভিযোগ করে জেসমিন।

অভিযোগটি গ্রহন করে র্যাব উত্তর চরবংশী ইউপি চেয়ারম্যানের কাছে জেসমিনকে পাঠায়। চেয়ারম্যান রাজিবের অভিভাবককে ইউপি কার্যালয়ে ডেকে বিয়ে করে জেসমিনকে ঘরে তুলে নিতে নির্দেশ দেন। চেয়ারম্যানের নির্দেশনা না মেনে রাজিব ও অভিভাবক বাড়ী চলে যায়। পরে বিয়ে হবে বলে চেয়ারম্যান জেসমিনকে রাজিবের বাড়িতে পাঠিয়ে দেন। গত ৫ দিন ধরে গৃহবধু জেসমিন প্রমিক রাজিবের বাড়িতে অবস্থান করছেন।

প্রেমিকা গৃহবধু বলেন, গত দুই বছর ধরেই রাজিবের সঙ্গে আমার প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে। স্বামী আমাকে তালাক দেয়ায় বিয়ের প্রস্তাব দেয়া হলেও রাজিব আমাকে বিয়ে করছে না। তাই আমি র্যাবের মাধ্যমে ইউপি চেয়ারম্যানকে জানিয়ে রাজিবের বাড়িতে অবস্থান করছি। শনিবার (২৭ ফেব্রুয়ারী) আমাদের বিয়ের কথা থাকলেও রাজিব বাড়ি থেকে লাপাত্তা।

আমার দাবি, রাজিবসহ তার পরিবারের লোকজন বিয়ের বিষয়টির সুরাহা দিতে হবে। তা না করা পর্যন্ত আমার অনশন চলবে বলে জানান প্রেমিকা জেসমিন। কিন্তু জেসমিন তার অভিভাবকের ফোন নাম্বার দিতে পারেনি।

এ বিষয়ে উত্তর চরবংশি ইউনিয়নের চেয়ারম্যান আবুল হোসেন বলেন, লক্ষ্মীপুরের র্যাব ভোলার চরফ্যাশানের গৃহবধু জেসমিনকে আমার কাছে পাঠায়। বিয়ে করে ঘরে তুলে নিতে রাজিব ও তার অভিভাবককে নির্দেশ দেয়া হয়েছে। তারা দুই দিন সময় নিয়েছিলো। কিন্তু এখন পর্যন্ত কোন খোঁজখবর নাই। আবারও চেষ্টা করা হবে।

Previous articleবিপুল ভোটে বিজয়ী হওয়ায় কাউন্সিলর আফজাল হোসেন বাবুকে সংবর্ধনা
Next articleসোনারগাঁওয়ে লোকজ মেলার উদ্বোধন
আজকের বাংলাদেশ ডিজিটাল নিউজ পেপার এখন দেশ-বিদেশের সর্বশেষ খবর নিয়ে প্রতিদিন অনলাইনে । ব্রেকিং নিউজ, জাতীয়, আন্তর্জাতিক রিপোর্টিং, রাজনীতি, বিনোদন, খেলাধুলা আরও অন্যান্য সংবাদ বিভাগ । আমাদের হাত বাধা নেই, আমাদের চোখ খোলা আমরা বলতে পারি ।