সাহারুল হক সাচ্চু: অনেকের মাঝে তিনজন। গ্রামের বসতি। ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠী ( আদিবাসী ) পরিবারের সন্তান। নিজেদের আগ্রহেই পড়ালেখা করছে। তিনজনই উচ্চ শিক্ষায় শিক্ষিত হতে চায়। সে ভাবেই পড়ালেখায় এগুচ্ছে। আগ্রহ রয়েছে পছন্দের পেশায় চাকুরী করার। সিরাজগঞ্জের উল্লাপাড়ার ফাজিলনগর গ্রামের ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠী পরিবারগুলোর আরো অনেকেই পড়ালেখা করছে। আর অভাবের মাঝেও অভিভাবকেরা সন্তানদের পড়ালেখা করাচ্ছে। এদের মাঝে শিক্ষার হার বেড়েছে। আরো বাড়ছে। উল্লাপাড়ার ফাজিলনগর গ্রামের লিমা রাণী মাহাতো উপজেলা সদরের একটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের উচ্চ মাধ্যমিক প্রথম বর্ষের শিক্ষার্থী। তার ভাই কনক রঞ্জন মাহাতো মাষ্ট্রার্সের শিক্ষার্থী।মেধাবী লিমা রাণী মাহাতো জানায় চিকিৎসক পেশার প্রতি তার সবচেয়ে বেশী আগ্রহ রয়েছে। একই গ্রামের কুমারী রিতা মাহাতো ও রুমা মাহাতো দশম শ্রেণীর শিক্ষার্থী। এলাকার একটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের নিয়মিত শিক্ষার্থী হয়ে পড়ালেখা করছে। শিক্ষকতা পেশায় দ্#ু৩৯;জনেরই আগ্রহের কথা জানায়। নিজ গ্রামের প্রাথমিক বিদ্যালয়ে তিনজনই পড়ালেখা করেছে। প্রতিবেদককে এদের অভিভাবক ছাড়াও আরো ক্#৩৯;জন জানান, ফাজিলনগর গ্রামের ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠীর তাদের মাঝে শিক্ষার হার বেড়েছে। আরো বাড়ছে। সংসারের অভাব থাকলেও সন্তানদেরকে পড়ালেখায় স্কুলে পাঠানো হচ্ছে। সরকারের বিশেষ এলাকার জন্য উন্নয়ন সহায়তা শীর্ষক প্রকল্পের আওতায় বিদ্যালয়ে যাতায়াত সুবিধায় গত ১৬ মার্চ গ্রামটির ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠী পরিবারের অষ্টম শ্রেণীর শিক্ষার্থী কনিকা মাহাতো ও মিতা মাহাতো বাই সাইকেল পেয়েছে।

Previous articleআড়াই মাস পরে কেশপুরে আলোচিত ভ্যান চালক ইদ্রিস হত্যার রহস্য উৎঘাটন
Next articleতাহিরপুরে অটোরিকশা উল্টে বৃদ্ধের মৃত্যু
আজকের বাংলাদেশ ডিজিটাল নিউজ পেপার এখন দেশ-বিদেশের সর্বশেষ খবর নিয়ে প্রতিদিন অনলাইনে । ব্রেকিং নিউজ, জাতীয়, আন্তর্জাতিক রিপোর্টিং, রাজনীতি, বিনোদন, খেলাধুলা আরও অন্যান্য সংবাদ বিভাগ । আমাদের হাত বাধা নেই, আমাদের চোখ খোলা আমরা বলতে পারি ।