তাবারক হোসেন আজাদ: লক্ষ্মীপুরের রামগঞ্জে প্রবাসীর স্ত্রীকে কুপিয়ে হত্যার পর অভিযুক্ত যুবককে গণপিটুনি দিয়ে হত্যা করার খবর পাওয়া গেছে।

রোববার (১৮ এপ্রিল) দুপুরে রামগঞ্জ উপজেলার ভাট্টা ইউনিয়নের জাফর নগর গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। নিহতদের মরদেহ সদর হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে।

পুলিশ জানান, পরকীয়া প্রেমের সম্পর্কের জেরে নিহত নারীর কথিত প্রেমিক রাসেল তাকে ছুরিকাঘাতে হত্যা করে। পরে বিক্ষুদ্ধ জনতার গণপিটুনিতে অভিযুক্ত রাসেল নিহত হন। নিহত নারী ওই গ্রামের কাতার প্রবাসী ছপি উল্ল্যাহর স্ত্রী ও দুই সন্তানের জননী নাসরিন সুলতানা। নিহত যুবক রাসেল একই গ্রামের সিদ্দিক উল্লাহর ছেলে।

প্রত্যক্ষদর্শী ও পুলিশ জানায়, দীর্ঘদিন ধরে স্বামী কাতার থাকার সুবাধে স্থানীয় ছফি উল্লাহর স্ত্রী নাসরিনের সঙ্গে পার্শ্ববর্তী বাড়ির সিদ্দিক উল্লাহর ছেলে রাসেলের সঙ্গে পরকীয়া প্রেমের সম্পর্ক গড়ে উঠে। এক পর্যায়ে ওই সম্পর্ক বিচ্ছিন্ন করে নারী। এতে রাসেল ক্ষিপ্ত হয়ে উঠে। ঘটনার দিন নাসরিনের স্বামীর বাড়িতে হামলা চালায়।

এসময় নারী ও তার পরিবারের লোকজনের চিৎকারে আশপাশের লোকজন আসলে তার গলায় ছুরি ধরে হত্যা করার হুমকি দেয় রাসেল। এক পর্যায়ে তাকে এলোপাতাড়ি ছুরিকাঘাত করে গুরুত্বর আহত করে। এসময় তাকেও গণধোলাই দেন স্থানীয় জনতা।

পরে আহতদের রামগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেয়ার পর কর্তব্যরত চিকিৎসক তাদের দুইজনকে মৃত ঘোষণা করেন।

এদিকে খবর পেয়ে দুপুরে ঘটনাস্থলে পরিদর্শন করেন পুলিশ সুপার ও থানার ওসিসহ পুলিশের বিশেষ দল।

পুলিশ সুপার ড. এ এইচ এম কামরুজ্জামান জানান, পরকীয়া প্রেমের সম্পর্কের জের ধরে এক নারীকে হত্যার পর বিক্ষুব্ধ জনতার গণপিটুনিতে অভিযুক্ত যুবকও নিহত হন। নিহতদের মরদেহ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। পরবর্তী আইনগত ব্যবস্থা প্রক্রিয়াধীন রয়েছে।

Previous articleরায়পুরে রাতের আঁধারে কৃষকের ২০ লাখ টাকা মুল্যের জমি দখল
Next articleকেশবপুরে ইউপি মেম্বরের হস্তক্ষেপে প্রভাবশালীর কবল থেকে উদ্ধার হল সরকারী রাস্তা
আজকের বাংলাদেশ ডিজিটাল নিউজ পেপার এখন দেশ-বিদেশের সর্বশেষ খবর নিয়ে প্রতিদিন অনলাইনে । ব্রেকিং নিউজ, জাতীয়, আন্তর্জাতিক রিপোর্টিং, রাজনীতি, বিনোদন, খেলাধুলা আরও অন্যান্য সংবাদ বিভাগ । আমাদের হাত বাধা নেই, আমাদের চোখ খোলা আমরা বলতে পারি ।