বাংলাদেশ প্রতিবেদক: ভোলার মনপুরায় বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে এক যুবতীকে জোর করে ধর্ষণের অভিযোগ পাওয়া গেছে। এই অভিযোগে এক যুবককে আটক করেছে পুলিশ।

সোমবার সকালে ওই যুবতীকে ডাক্তারী পরীক্ষার জন্য ভোলা জেলা হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়েছে বলে জানিয়েছেন মনপুরা থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) সাইদ আহমেদ।

এর আগে রোববার দুপুরে ২টায় ওই যুবতী নিজে মনপুরা থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন আইনে মামলা করেন। একই দিন বিকেল ৪টায় যুবতীকে ধর্ষণের মামলায় পুলিশ অভিযুক্ত যুবককে আটক করে। গত শনিবার রাতে হাজীরহাট ইউনিয়নের চরযতিন গ্রামে যুবতীর বাড়ির পাশে বাঁশবাগানে ধর্ষণের ঘটনাটি ঘটে।

আটক যুবক মো: ফিরোজ (২৮) উপজেলার হাজীরহাট ইউনিয়নের চরযতিন গ্রামের বাসিন্দা মো: ইউনুচের ছেলে।

মামলার সূত্রে জানা গেছে, প্রেমের সর্ম্পক গড়ে বিয়ের প্রলোভনে শনিবার রাতে ওই যুবতীকে বাড়ির পাশের বাঁশঝাঁড়ে নিয়ে মুখ চেপে ধর্ষণ করে আটক যুবক মো: ফিরোজ। এই ঘটনায় রোববার ওই যুবতী থানায় গিয়ে মামলা করেন। একই দিন বিকেলে পুলিশ ওই যুবককে হাজীরহাট ইউনিয়নের চরযতিন গ্রামের নিজ বাড়ি থেকে গ্রেফতার করে। সোমবার সকালে ধর্ষণের শিকার ওই যুবতীকে ডাক্তারী পরীক্ষার জন্য ভোলা হাসপাতালে নেয়া হয়।

এদিকে সোমবার আটক যুবককে আদালতের মাধ্যমে জেলহাজতে পাঠানো হয়েছে বলে জানিয়েছেন মামলার তদন্ত কর্মকর্তা উপ-পরিদর্শক (এসআই) শ্রীকান্ত।

এ ব্যাপারে মনপুরা থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) সাইদ আহমেদ জানান, ধর্ষণের অভিযোগে আটক যুবকের বিরুদ্ধে থানায় মামলা হয়েছে। সোমবার ওই যুবতীকে ডাক্তারী পরীক্ষার জন্য ভোলা জেলা হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

Previous articleকরোনা: দেশে গত ২৪ ঘণ্টায় ৩ জনের মৃত্যু
Next articleফ্লাইওভারে ‘ফাটল’ পায়নি চসিকের প্রতিনিধি দল
আজকের বাংলাদেশ ডিজিটাল নিউজ পেপার এখন দেশ-বিদেশের সর্বশেষ খবর নিয়ে প্রতিদিন অনলাইনে । ব্রেকিং নিউজ, জাতীয়, আন্তর্জাতিক রিপোর্টিং, রাজনীতি, বিনোদন, খেলাধুলা আরও অন্যান্য সংবাদ বিভাগ । আমাদের হাত বাধা নেই, আমাদের চোখ খোলা আমরা বলতে পারি ।