বাংলাদেশ প্রতিবেদক: খুলনার ২৫ ইউপির মধ্যে একমাত্র নারী চেয়ারম্যান প্রার্থী ডুমুরিয়া উপজেলার খর্ণিয়া ইউপির নৌকা প্রতিকের আফরোজা আক্তার মিতাকে বৃহস্পতিবার বেলা ২টার দিকে দুর্বৃত্তরা ছুরিকাঘাতে আহত করেছে। খর্ণিয়া বাজার এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

মিতার স্বামী রবিউল আলম বলেন, নির্বাচন চলাকালে মিতা কেন্দ্র থেকে কেন্দ্র ছুটে বেড়াচ্ছিলেন। বেলা ২টার দিকে মিতা খর্ণিয়া বাজার পার হয়ে সামনে যাচ্ছিল। এ সময় তার বমি এলে গাড়ি থেকে নেমে রাস্তার পাশে অবস্থান নিয়ে বমি করছিল। তখন মটরসাইকেলে দুইজন লোক আসে। কিছু বুঝে ওঠার আগেই তারা লাথি মেরে ফেলে দেয়। এরপর ছুরি দিয়ে মিতার মাথায় আঘাত করে এবং তারা মটরসাইকেল নিয়ে পালিয়ে যায়। এরপর লোকজন মিতাকে খুলনা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করেন। সেখানে চিকিৎসকরা তার মাথায় ছয়টি সেলাই দেয়।

রাজনৈতিক প্রতিপক্ষের লোকজন এ হামলা চালায় বলে তিনি দাবি করেন।

খুলনা জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট সুজিত অধিকারী বলেন, শেখ হাসিনার নৌকাকে কলূষিত করতে তৎপর ও ষড়যন্ত্রকারীরাই নৌকার প্রার্থীর ওপর ছুরি দিয়ে হামলা চালায়। তিনি এ ঘটনার সাথে জড়িতদের দ্রুত গ্রেফতার ও আইনের আওতায় আনার দাবি জানান।

এদিকে, খুলনার চার উপজেলায় ২৫টি ইউনিয়নে দ্বিতীয় ধাপের ইউনিয়ন পরিষদে নির্বাচন বিচ্ছিন্ন ঘটনার মধ্যদিয়ে সম্পন্ন হয়েছে।

বৃহস্পতিবার সকাল ৮টায় এ ভোটগ্রহণ শুরু হয়।

২৬১টি কেন্দ্রে মোট ভোটার পাঁচ লাখ ৩৭ হাজার ৬৬৮ জন। ইউপি চেয়ারম্যান প্রার্থী ১১৪ জন, সংরক্ষিত মহিলা সদস্য প্রার্থী ২৯৬ জন এবং সাধারণ সদস্য প্রার্থী ৯৫৮ জন। এবারে খুলনার ২৫টি ইউপি নির্বাচনে মোট চেয়ারম্যান পদে ১১৪ জন, সংরক্ষিত নারী আসনে ২৯৬ জন, সাধারণ সদস্য পদে ৯৫৮ জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বীদ্বতা করেন।

জেলা নির্বাচন অফিসের সূত্র জানান, ডুমুরিয়ার ১৪টি ইউনিয়নে, বটিয়াঘাটায় তিনটি ইউনিয়নে, ফুলতলায় চারটি ইউনিয়নে এবং রূপসা উপজেলায় চারটি ইউনিয়নে নির্বাচন হচ্ছে। ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন উপলক্ষে নির্বাচনী এলাকায় বৈধ অস্ত্রসহ চলাচল ও অস্ত্র প্রদর্শনের ওপর নিষেধাজ্ঞা আরোপ করা হয়।

সংশ্লিষ্ট ইউনিয়নগুলোতে নিয়োগ দেয়া হয়েছে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট এবং আইন শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী। এবারের নির্বাচনে চেয়ারম্যান, সদস্য ও সংরক্ষিত ইউপি সদস্য পদে মোট ১ হাজার ৩৬৮জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বীতা করেন।

ইউনিয়নগুলো হচ্ছে, বটিয়াঘাটা উপজেলার সুরখালী, ভান্ডারকোট, সদর, ফুলতলা উপজেলার আটরা গিলাতলা, দামোদর, জামিরা, ফুলতলা, রূপসা উপজেলার আইচগাতী, টিএসবাহিরদিয়া, শ্রীফলতলা, নৈহাটি, ডুমুরিয়া উপজেলার রঘুনাথপুর, মাগুরখালী, খর্ণিয়া, ধামালিয়া, আটলিয়া, ভান্ডারপাড়া, রুদাঘরা, রংপুর, ডুমুরিয়া, শোভনা, শরাপপুর, মাগুরঘোনা, সাহস ও গুটুদিয়া।

জেলার সিনিয়র নির্বাচন অফিসার এম মাজহারুল ইসলাম জানান খুলনার চার উপজেলার ২৫টি ইউনিয়নে সুষ্ঠু ও শান্তিপূর্ণভাবে গ্রহণ সম্পন্ন হয়েছে। এখন ফলাফল গণনা চলছে।

Previous articleএখন কোনো বিচারপতিই সত্য রায় দিতে পারে না: মির্জা ফখরুল
Next articleতাহিরপুরে যুবলীগের ৪৯তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালিত
আজকের বাংলাদেশ ডিজিটাল নিউজ পেপার এখন দেশ-বিদেশের সর্বশেষ খবর নিয়ে প্রতিদিন অনলাইনে । ব্রেকিং নিউজ, জাতীয়, আন্তর্জাতিক রিপোর্টিং, রাজনীতি, বিনোদন, খেলাধুলা আরও অন্যান্য সংবাদ বিভাগ । আমাদের হাত বাধা নেই, আমাদের চোখ খোলা আমরা বলতে পারি ।