বাংলাদেশ প্রতিবেদক: কক্সবাজারে ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে ব্যাপক কারচুপির অভিযোগ উঠেছে। সদর উপজেলার চৌফলদণ্ডী ইউনিয়নে ভোটের একদিন পর মিলেছে ব্যালট পেপার ভর্তি বাক্স।

শনিবার সকালে চৌফলদণ্ডী আদর্শ উচ্চ বিদ্যালয় খুলতে এসে নৈশ প্রহরী এহসানুল হক প্রধান শিক্ষকের টেবিলের নিচে ওই ব্যালটবাক্স দেখতে পান। এ নিয়ে সর্বত্র তোলপাড় সৃষ্টি হয়েছে। জনমনে দেখা দিয়েছে মিশ্র প্রতিক্রিয়া।

সাধারণ ভোটাররা জানান, চৌফলদণ্ডী ইউনিয়নে সুষ্ঠু ভোটগ্রহণ হয়নি। ৬ নম্বর ওয়ার্ডের চৌফলদণ্ডী আদর্শ উচ্চ বিদ্যালয় কেন্দ্রে ব্যাপক কারচুপি হয়েছে বলে জানিয়েছেন ভোটাররা। এ কেন্দ্রে নৌকার প্রার্থীর লোকজন সারাদিন প্রভাব বিস্তার করে জোরপূর্বক সিল মেরে ভোট আদায় করেছে। যার প্রমাণ ওই ব্যালটবাক্স।

এখানে চেয়ারম্যান প্রার্থী ও মেম্বার প্রার্থীর মোট ভোটের ফলাফলও মিল নেই। উদ্ধার হওয়া বাক্সটিতে মেম্বার প্রার্থী আপেল, চেয়ার‌ম্যান প্রার্থী ঘোড়া ও আনারসের বিপুল ব্যালট পেপার রয়েছে।

ব্যালটভর্তি বাক্স উদ্ধারের পর পরিস্থিতি অস্বাভাবিক হয়ে উঠায় শুক্রবার (১২ নভেম্বর) সন্ধ্যায় কক্সবাজার সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মিল্টন রায় ও সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শেখ মনীর উল গিয়াস এসে ব্যালটবাক্সটি নিয়ে যান।

প্রতিদ্বন্দ্বী সাধারণ সদস্য ও নারী সদস্যরা অভিযোগ করেন, ভোটের দিন নির্বাচনী কারচুপির অভিযোগ এনে এর বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়ার দাবি জানিয়েছেন মহিলা সদস্য প্রার্থীসহ আরো কয়েকজন সদস্য প্রার্থী।

এজেন্টদের অভিযোগ, ওই কেন্দ্রে সন্ধ্যার দিকে ভোট গণনা শেষে ফলাফল না জানিয়েই তাদের বের করে দেয়া হয়।

এদিকে শনিবার ওই কেন্দ্রটির ফলাফল পুনঃগণনা করার দাবি জানিয়ে বিক্ষোভ মিছিল বের করেছেন সাধারণ ভোটাররা।

Previous articleহাসপাতালের পথে খালেদা জিয়া
Next articleলক্ষ্মীপুরে ট্রাকচাপায় ২ স্কুলছাত্রী নিহত
আজকের বাংলাদেশ ডিজিটাল নিউজ পেপার এখন দেশ-বিদেশের সর্বশেষ খবর নিয়ে প্রতিদিন অনলাইনে । ব্রেকিং নিউজ, জাতীয়, আন্তর্জাতিক রিপোর্টিং, রাজনীতি, বিনোদন, খেলাধুলা আরও অন্যান্য সংবাদ বিভাগ । আমাদের হাত বাধা নেই, আমাদের চোখ খোলা আমরা বলতে পারি ।